ঢাকা, বুধবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঘরে বসেই হাইকমিশনের সেবা পাবেন মালয়েশিয়া প্রবাসীরা

প্রবাসী বাংলাদেশিদের উন্নত সেবা দেয়ার প্রত্যাশায় এবার ‘বাংলা টাইগার ডিজিটাল’ নামক ডিজিটাল প্লাটফর্মে সেবা চালু করলো মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন। এর মাধ্যমে ঘরে বসেই হাইকমিশনের বেশিরভাগ সেবা পাবেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন আয়োজিত এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এর লোগো উন্মোচন ও শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

বুধবার (১০ মার্চ) স্থানীয় সময় রাত ৯টা ৩০ মিনিটে শুরু হওয়া এ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ডেপুটি হাইকমিশনার ও মিনিস্টার মো. খোরশেদ এ খাস্তগির। ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) মিজ মাশফী বিনতে শামস উপস্থিত ছিলেন।

মালয়েশিয়ায় বসবাসরত বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশির সাথে সংযোগ বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ হাই কমিশনের নিজস্ব ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘বাংলা টাইগার ডিজিটাল’ তৈরি করেছে। এই প্রয়াসে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ‘ডটলাইনস’ হাই কমিশনের টেকনোলজি পার্টনার হিসেবে কাজ করছে। প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করে প্রবাসীরা সহজেই পাসপোর্ট, বৈধকরণ, চাকরির আবেদনসহ বিভিন্ন ধরণের সেবা পাবেন। এজন্য সেবাপ্রার্থীদের কোনো অর্থ ব্যয় করতে হবে না।

হাই কমিশনার মো. গোলাম সারওয়ার তার স্বাগত বক্তব্যে প্ল্যাটফর্মটির সংক্ষিপ্ত পটভূমি তুলে ধরে প্রবাসীদের সুবিধার্থে এটি ব্যবহারের পরামর্শ দেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব মিজ মাশফী বিনতে শামস বলেন, এই প্ল্যাটফর্মটি প্রধানমন্ত্রীর ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গড়ার লক্ষ্যে প্রবাসসেবা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে একটি উদাহরণ। হাইকমিশনের সময়োপযোগী উদ্যোগের ফলে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী উপকৃত হবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার বক্তব্যে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের বিশাল অবদানের উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি প্রবাসীদের কল্যাণে বর্তমান সরকার কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের কথাও তুলে ধরেন। এছাড়া, তিনি এ ধরণের উদ্যোগ গ্রহণ করায় হাই কমিশনকে ধন্যবাদ জানান।

এছাড়া উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলা টাইগার ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের ওপর নির্মিত অডিও-ভিজ্যুয়ালও প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্টস এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ডিক্যাব)-এর সাংবাদিকদের সাথে হাই কমিশনার এ বিষয়ে মত বিনিময় করেন ।

এই প্রয়াসের মাধ্যমে কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশন বিদেশে বাংলাদেশের প্রথম পূর্নাঙ্গ ডিজিটাল মিশন হিসাবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল। হাই কমিশন ভবিষ্যতে মোবাইল টেলিফোনি, স্বাস্থ্যসেবা, রেমিটেন্সের মতো নতুন নতুন সেবা যুক্ত করার পরিকল্পনা করছে। আর এর মাধ্যমে প্রবাসীদের নানাবিধ সমস্যার সমাধান মিলবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেছেন দীর্ঘদিন মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন এমন প্রবাসীরা।