ঢাকা, শনিবার, ২৬শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

গণী এখন লাখপতি

কক্সবাজার টেকনাফের প্রবালদ্বীপ ক্ষ্যাত সেন্টমার্টিনে আলোচিত মাছ শিকারী সেই গণির জালে ফের আটকা পড়েছে ৪০ কেজি ওজনের একটি বড় কালো পোয়া মাছ।

১৮ নভেম্বর (শুক্রবার) দিবাগত গভীর রাতের দিকে মাছটি গনির জালে আটকা পড়ে। এদিকে ৮ নভেম্বর গণির জালে দুটি কালো জোড়া পোয়া মাছ ধরা পড়েছিল।তখন মাছ দুটি ২ লাখ, ৭০ হাজার টাকা দামে বিক্রি করেছিল।

শুক্রবার রাতে ধরা পড়া মাছটিকে সেন্টমার্টিন বাজারে নিয়ে আসেন গণি।

দাম হাঁকিয়েছেন ৮ লাখ টাকা। তবে মাছটির দাম উঠেছে ৫ লাখ। আরও বেশি দামে বিক্রি করার জন্য গণি কক্সবাজার ফিশারি ঘাটের উর্দ্দশ্যে রওনা হয়েছেন।

স্থানীয় জেলেদের কাছ থেকে জানাযায়, এ মাছের পেটের ভিতরে থাকা পটকা (এয়ার ব্লাডার) নামে একটি বস্তু রয়েছে। সেই পটকার জন্য মাছটির এত কদর।

ঐ পটকা দিয়ে বিশেষ ধরনের সার্জিক্যাল সুতা তৈরি করা হয়। এজন্যই এই পোপা মাছটির দাম বেশী।

মাছ শিকারী গণি বলেন, রাতে মাছ শিকার করতে বোট নিয়ে গভীর বঙ্গোপসাগরে জাল ফেলি।কিছুক্ষন পর জাল উঠিয়ে দেখি বড় একটি কালো পোপা মাছ। মাছটি বোটে তুলে কোথাও না গিয়ে তীরে ফিরে আসি। মাছটির প্রাথমিক দাম ৭ লাখ টাকা ধরা হয়েছে। দেখি শেষ পর্যন্ত কত দামে বিক্রি করতে পারি।

সেন্টমার্টিনের বাসিন্দা সংবাদ কর্মী আব্দুল মালেক বলেন,জেলে গণি ধারাবাহিক ভাবে এ পর্যন্ত ৬টি বড় কালো পোপা মাছ পেয়েছেন।
কালো পোয়া মাছ বিক্রি করে গণি এখন বড় লোক।বলতে গেলে আল্লাহর অশেষ কেরামতির ইশারায় জেলে গণি এখন সেন্টমার্টিন দ্বীপের বড় লোক তালিকায়।

উল্লেখ্য:-২০১৮ সালের ১৪ নভেম্বর গণি ৩৪ কেজি ওজনের একটি পোয়া মাছ বিক্রি করেছিলেন ১০ লাখ টাকায়। ২০২০ এর নভেম্বর মাসে এসে গণি পোয়া মাছ পেয়েছিলেন ঐ মাছটা বিক্রি করেছিলেন ৬ লাখ টাকায়। গত ১৫ দিন আগেও দুটি ২ লাখ, ৭০ গাজার টাকস দামে দুটি কালো পোপা মাছ বিক্রি করেছিলো

সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Email this to someone
email
Print this page
Print
Pin on Pinterest
Pinterest

দৈনিক নবচেতনার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন