ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরগাঁওয়ে চিকিৎসার নামে রোগীকে ধর্ষণ. মাহাত কারাগারে

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি

চিকিৎসার নামে গৃহবধূকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গ্রাম্য মাহাত প্রভাত চন্দ্র (৫৫) আটক হয়েছে। রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) আদালতে আত্মসমর্পণপূর্বক জামিনের আবেদন জানালে আদালত তার আবেদন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠায়। আটককৃত প্রভাত চন্দ্র ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রাজাগাঁও ইউনিয়নের আসানগর এলাকার মৃত খগেন্দ্রনাথ বর্মণের ছেলে। মামলা সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ক্ষেনপাড়া সর্দারপাড়া গ্রামের বিবাহিত এক নারী শারীরিকভাবে অসুস্থ্ হওয়ায় তাকে গ্রাম্য মাহাত প্রভাত চন্দ্র চিকিৎসা করে সুস্থ করে তোলার আশ্বাস দেয়। চিকিৎসার প্রয়োজনে রোগীকে তার বাড়িতে ২দিন যাত্রী যাপন করার শর্ত জুড়ে দেয়। এদিকে, গত ১৭ জুন ঐ নারীকে তার পিতা চিকিৎসার উদ্দেশ্যে ঐ মাহাতের বাড়িতে রেখে আসে। অতঃপর ১৭ জুন রাত ১১ টা হতে ১৯ জুন ভোর পর্যন্ত মাহাত প্রভাত ঐ গৃহবধূকে চিকিৎসার নামে একাধিকবার ধর্ষণ করে এবং ঘটনা প্রকাশ না করলে আরও সমস্যা হবে বলে ভয়ভীতি দেখায়। এ ঘটনায় ঐ নারীর পিতা বাদী হয়ে গত ২২ জুন রুহিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধন/২০০৩ এর ৯(১) ধারায় একটি মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর থেকে পলাতক ছিলেন মাহাত প্রভাত চন্দ্র। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রুহিয়া থানার উপ-পরিদর্শক সজল জানান, মামলাটির তদন্ত চলছে। আসামি প্রভাত চন্দ্র গ্রেফতার এড়াতে আদালতে আত্মসমর্পণপূর্বক জামিনের আবেদন জানালে আদালত তার আবেদন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Email this to someone
email
Print this page
Print
Pin on Pinterest
Pinterest

দৈনিক নবচেতনার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন