ঢাকা, শুক্রবার, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সাকিবকে ছাড়াই মোহামেডানের হাসি

দলের সেরা তারকা সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ হচ্ছে তা মোটামুটি সবার জানা ছিল। চারপাশের পরিস্থিতি স্বস্তিকর ছিল না। কোচ মেহরাব হোসেন অপি তাকে ছাড়া পরিকল্পনা করবেন নাকি তাকে রেখে দল সাজাবে তাও নিশ্চিত ছিলেন না। শেষ পর্যন্ত সন্ধ্যার পর আনুষ্ঠানিকভাবে মোহামেডান নিশ্চিত হয়, সাকিব ৩ ম্যাচ নিষিদ্ধ।

রাত পোহালেই তাদের লিগের অষ্টম রাউন্ডের ম্যাচ ওল্ড ডিওএইচএসের সঙ্গে। হুটহাট পরিকল্পনা করে, শুভাগত হোমকে অধিনায়ক করে নতুন পথ চলা শুরু মোহামেডানের। এরপর শেষ হাসিটা হাসল তারা। রোববার বৃষ্টি আইনে ৯ রানে ওল্ড ডিওএইচকে হারিয়ে সুপার লিগে পথে এগিয়ে গেল মতিঝিল পাড়ার ক্লাবটি।

রোববার (১৩ জুন) বিকেএসপির ৪ নাম্বার মাঠে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রান করে মোহামেডান। ব্যাটিংয়ের সময় ডিওএইচএস উইকেটরক্ষকের হেলমেটে বল লাগায় ৫ রান পেনাল্টি পাওয়াতে টার্গেট দাঁড়ায় ১৫৯ রানে।

টার্গেটে খেলতে নামলে ১৩.৪ ওভার পর আসে বৃষ্টি। বৃষ্টি আইনে ওল্ড ডিওএইচএসের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৬ ওভারে ১২৫। তারা ৪ উইকেট হারিয়ে ১১৫ রান করে। শেষ পর্যন্ত ৯ রানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মোহামেডান।

বৃষ্টির বাগড়া দেওয়া এই ম্যাচে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে ডিওএইচএস। সর্বোচ্চ ২৬ রান করেন মাহমুদুল হাসান জয়। এ ছাড়া আনিসুল ইসলাম ইন ২৩ ও মোহায়মিনুল খান ২০ রানে অপরাজিত ছিলেন। শেষ পর্যন্ত ১৬ ওভারে তাদের ইনিংস থামে ১১৫ রানে। ৫ রানের পেনাল্টি না পেলে হয়তো জয়ের আরও কাছে যেতে পারতো ডিওএইচএস।

মোহামেডানের হয়ে সর্বোচ্চ ২ উইকেট নেন শুভাগত। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের জন্য ম্যাচসেরার পুরষ্কার পান ইরফান।

এর আগে ব্যাটিং করতে নেমে দুই ওপেনার দেখেশুনে ধীরে ধীরে খেলতে থাকেন। আব্দুল মাজিদ ২৯ বলে ২৯ ও পারভেজ হোসেন ইমন ১৫ বলে ১৪ করেন। দুজনে ফিরে গেলে খেলার নাটাই নিজের হাতে নিয়ে নেন ইরফান। ইনিংসের ৬ ওভারের সময় মাঠে নেমে খেলেন শেষ বল পর্যন্ত। তার ৪২ বলের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৫টি ছয় ও ৩টি চারে।

এ ছাড়া শামসুর রহমান ১৭, নাদিফ চৌধুরী ১৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ৫ রানে অপরাজিত ছিলেন শুভাগত হোম। সর্বোচ্চ ২ উইকেট নেন রাকিবুল হাসান।

৮ রাউন্ড শেষে ৫ জয়ে মোহামেডানের পয়েন্ট ১০। টেবিলে তাদের অবস্থান চতুর্থ স্থানে। ১২ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে প্রাইম ব্যাংক।