ঢাকা, শুক্রবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

তামিম কেন নেই বিশ্বকাপে, উত্তর খুঁজলেন মাশরাফি

তামিম ইকবাল সিদ্ধান্ত জানিয়েছে দিয়েছেন, আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবেন না তিনি। ৩ মিনিটের এক ভিডিও বার্তায় এর কারণও পরিষ্কার করেছেন। তবে নামটা যখন তামিম ইকবাল, বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসে সেরা ওপেনারদের কাতারে সবার উপরে, সেই তামিমের না খেলার সিদ্ধান্তর প্রতিক্রিয়া অল্পতে থেমে যেতে পারে না! আলোচনা চলছে এ নিয়ে, কথা বলেছেন নাজমুল হাসান পাপনও। এবার মাশরাফি বিন মুর্তজা জানালেন তামিমের না খেলার কারণ।

মাশরাফি অবশ্য পুরো বিষয়টি দেখেছেন খোলা চোখে। যেখানে তামিমের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক এই সফল অধিনায়ক। নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে মাশরাফি লিখেছেন, ‘তামিম ইকবাল খান, আনডাউটলি বাংলাদেশের একজন সেরা ব্যাটসম্যান। স্ট্যাটস ও তাই বলে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার সব যোগ্যতা তার আছে। ক্রিকেট বোর্ড টিম ম্যানেজমেন্ট সবাই তাকে দলে রাখবে এটা সবারই জানা। কেন তামিম এ সিদ্ধান্ত নিলো তার যুক্তিও আছে অনেক।’

 

যুক্তি হিসেবে মাশরাফি জানান, ‘প্রথমত; তামিমের ইনজুরি, তারপর প্রায় এই নিয়ে পেছনের চারটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ সে খেলতে পারেনি। তার মানে প্রায় ১৬টা ম্যাচ। এতে হঠাৎ কোন ম্যাচ না খেলে মাঠে নামার পর নিজের ওপর নিজের বিশাল চাপ সৃষ্টি হবে। যা পরে ওর ওয়ানডে বা টেস্টে ওকে ক্যারি করতে হতে পারে।’

তামিম জানিয়েছেন তরুণদের প্রতি অবিচার করতে চান না তিনি। এই ফরম্যাটে তার অনুপস্থিতি যারা জাতীয় দলকে সার্ভিস দিচ্ছেন, বিশ্বকাপ খেলা তারাই প্রত্যাশা করে। তাদের থেকে সেই সুযোগ কেড়ে নিতে চান না বাঁহাতি এই ওপেনার। মাশরাফিও পাশে দাঁড়ালেন সে সব তরুণ আর নিয়মিত ক্রিকেটারদের।

মাশরাফি জানালেন, ‘কথা হলো এখন যারা খেলছে তারা তো রান করেনি। আবার সেখানেও কথা আছে। যে উইকেটে খেলা হচ্ছে সেখানে রিয়াদ ছাড়া আর কোন দলের খেলোয়াড়ই ৫০ ছুঁতে পারেনি। ট্রু উইকেটে বিচার না করা একেবারেই অন্যায় হবে সৌম্য, লিটন বা নাঈম এর সাথে। সমস্ত কঠিন সিরিজগুলো সত্যিই এই ছেলেগুলো পার করছে।’

সঙ্গে আরও লিখেছেন তিনি, ‘তামিমের সিদ্ধান্তকে জাস্টিফাই করা খুব কঠিন কাজ না। পুরোটাই পজিটিভভাবে দেখলে সেটা হলো— প্রথমত এটা একান্তই তামিমের সিদ্ধান্ত। এরপর সবচেয়ে বড় যে বিষয়টা ছিল তামিম সব সময় ড্রেসিংরুমে ওয়েলকামিং পারসন। কিন্তু ১৬টা আন্তর্জাতিক ম্যাচ বা কোন প্র্যাকটিস ম্যাচ ছাড়া এবার সে কতোটুকু ওয়েলকামিং হতো তাও হয়তো তাকে ভাবিয়েছে।’

 

মাশরাফির বিশ্বাস সব বিপত্তি কাটিয়ে আবার বাইশ গজে ফিরবেন তামিম। ফিরবেন ব্যাট হাতে দাপট দেখাতে। তামিমের এখনও অনেক ম্যাচ জেতানোর বাকি আছে বলে মনে অভয় দিলেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

মাশরাফি জানান, ‘তামিম স্টিল দ্য বেস্ট এন্ড উইল রিমেইন ইনশাল্লাহ। এই ফরম্যাটে জোর করে খেলে অবশ্যই টেস্ট, ওয়ানডের সেরা ব্যাটসম্যানকে আপসেট কেউ দেখতে চাইবে না। তামিমের এখনও অনেক ম্যাচ জেতানোর বাকি আছে। ইউ বিউটি খান, উইল মিস ইউ ইন ওয়ার্ল্ডকাপ।’