ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

হজের খুতবায় প্রকম্পিত আরাফাতের ময়দান

সবার গায়ে সাদা কাফনের দুই টুকরো কাপড়, আর মুখে তালবিয়া লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক ধ্বনি। এমন মধুর ধ্বনি-প্রতিধ্বনিতে পবিত্র আরাফাতের পাহাড়ঘেরা ময়দান ছাপিয়ে আকাশ-বাতাস মুখর ও প্রকম্পিত হচ্ছে। এ এক অভূতপূর্ব দৃশ্য!
আজ সোমবার পবিত্র হজ। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় সম্মেলন পবিত্র হজের মূলপর্ব শুরু হয়েছে। সোমবার দুপুরে আরাফাতের ময়দান সংলগ্ন মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুতবা শুরু হয়। এ সময় খুতবার সুরে প্রকম্পিত হয় আরাফাতের ময়দান। এ বছর হজে খুতবা দিচ্ছেন সৌদি আরবের বিশিষ্ট আলেম, মসজিদুল হারামের ইমাম ও খতিব শায়খ ড. বান্দার বিন আবদুল আজিজ বালিলা।

খুতবার শুরুতে তিনি আল্লাহতায়ালার প্রশংসা, হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ওপর দরুদ পাঠ করেন। উপস্থিত হাজীদের সুস্থতা কামনা করেন। তাদের জন্য দোয়া করেন। খুতবায় রাসুলের (সা.) একটি হাদিস পড়েন, যার মূল কথা হলো- কোনো মুসলমানের যদি সক্ষমতা অর্জন হয়, তাহলে জীবনে একবার হলেও তাকে অবশ্যই হজ করতে হবে।

চলতি বছরও পবিত্র হজের আরবি খুতবা অন্যান্য ভাষার পাশাপাশি বাংলা ভাষায়ও অনুবাদ করা হচ্ছে। বাংলাসহ অন্য যে ভাষায় সম্প্রচার হবে হজের খুতবা তা হলো- ইংরেজি, ফ্রেন্স, তুর্কি, মালাইউ, চায়নিজ, উর্দু, ফার্সি, রাশিয়ান ও হাউসা।

আল্লাহর কাছে হাজিরা দিতে বিশ্বের ১৫০টি দেশের ৬০ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি আরাফাত ময়দানে হাজির হয়েছেন। তাদের প্রত্যেকের চোখে-মুখে ছিল ক্ষমাপ্রার্থনার আভাস। সবাই দুই হাত তুলে দোয়া করছেন।

মিনায় ফজরের নামাজ আদায়ের পর নিয়ম অনুযায়ী রওয়ানা দেন আরাফাতের ময়দানে হজযাত্রীরা সেখানে মসজিদে নামিরাহে একই ইমামের পেছনে জোহর ও আসরের নামাজ আদায় করবেন।

বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম ধর্মীয় এই জমায়েতে প্রতি বছরই লাখ লাখ মুসল্লি জড়ো হন। মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে গত দুই বছর যাবত সীমিত পরিসরে হজ পালনের আআয়োজন করছে সরকার।