ঢাকা, সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মাঙ্কিপক্স: ১২ দেশে আক্রান্ত ৯২, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উদ্বেগ

করোনা আতঙ্কের মাঝেই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মাঙ্কিপক্স। ইউরোপ ও আমেরিকার বেশ কয়েকটি দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। গত ১৩ মে থেকে ১২টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস। এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৯২ জন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) জানিয়েছে, আফ্রিকা থেকে ইউরোপ এবং আমেরিকায় ছড়িয়ে পড়া মাঙ্কিপক্সে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়বে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, এখনই এ নিয়ে বিশেষ সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। কারণ, অতিমারি ঘোষণা হয়নি এমন দেশেও ছড়িয়ে পড়ছে মাঙ্কিপক্স। গত ৭ মে লন্ডনে প্রথম এক ব্যক্তির শরীরে মাঙ্কিপক্স পাওয়া যায়। আক্রান্ত ওই ব্যক্তি নাইজেরিয়ায় গিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। সেখানেই কোনোভাবে আক্রান্ত হন তিনি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাঙ্কিপক্স এক বিশেষ ধরনের বসন্ত। জলবসন্ত বা গুটিবসন্ত তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি পরিচিত। তাই প্রতিকারও অপেক্ষাকৃত সহজ। কিন্তু এই ভাইরাস এতই বিরল যে এখন পর্যন্ত আক্রান্তদের সুস্থ করতে নির্দিষ্ট কোনো চিকিৎসা পদ্ধতি চিকিৎসকদের জানা নেই।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ‌্যম বলছে, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা ছাড়াও ইউরোপের অন্তত ৯টি দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ব্রিটেন, পর্তুগাল এবং স্পেনের মতো দেশ সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত। এছাড়া বেলজিয়াম, ফ্রান্স, জার্মানি, নেদারল্যান্ড, ইটালি এবং সুইডেনে ছড়িয়ে পড়েছে এই বসন্ত।

বাংলাদেশে সব বন্দরে সতর্কতা
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়া নতুন মাঙ্কিপক্স ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশের প্রতিটি বন্দরে সতর্ক অবস্থা জারি করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। রোববার (২২ মে) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক রোবেদ আমিন।

এই নতুন ভাইরাস বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র ও রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, এয়ারপোর্ট, ল্যান্ড পোর্টসহ সব পোস্টগুলোকে আমরা সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। এসব বন্দর দিয়ে সন্দেহভাজন কেউ প্রবেশ করলে তাকে চিহ্নিত করার পাশাপাশি অতিদ্রুত তাকে সংক্রমণ ব্যাধি হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়ার নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।