ঢাকা, বুধবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

লকডাউনের আগেই রাজধানী ছাড়ছেন অনেকে

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় আগামী ৫ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। এর আগেই রাজধানী ছেড়ে গ্রামের বাড়িতে ফিরছেন অনেক মানুষ।

শনিবার (৩ এপ্রিল) রাতে কথা হয় ইকতিয়ার উদ্দিন সাগর নামের এক চাকরিপ্রার্থীর সঙ্গে। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘সরকার আবার লকডাউন দিয়েছে। করোনা পরিস্থিতিও খারাপ। এই পরিস্থিতিতে ঢাকায় থাকা সুবিধাজনক হবে না বলে মনে করি। তাই গ্রামে ফিরে যাচ্ছি।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বৃষ্টি আক্তার বলেন, ‘মেসে থেকে টিউশনি করাতাম। গত বছর লকডাউনের পর বাড়িতে গিয়েছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর ঢাকায় এসে ফের টিউশনি শুরু করি। সরকার আবার লকডাউন ঘোষণা করেছে। টিউশন হোল্ডার বলেছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর আসতে। তাই চলে যাওয়া ছাড়া এখন আর উপায় নেই। ঈদের পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ফিরব, ইনশাআল্লাহ।’

রহমান নামের এক শ্রমজীবী বলেন, ‘সরকার আবার লকডাউন ঘোষণা করেছে। এক সপ্তাহের ঘোষণা দিলেও পরে আরও বাড়বে বলে মনে হচ্ছে। এ অবস্থায় ঢাকায় থাকা সম্ভব হবে না। গ্রামে গেলে কিছু কাজ পাওয়া যাবে। সেগুলোতে পারিশ্রমিক কম। তবুও উপায় নেই, পেট তো চালাতে হবে।’

গত বছরের ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম করোনায় মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এরপর আনুষ্ঠানিকভাবে ‘লকডাউন’ ঘোষণা করা না হলেও মহামারি নিয়ন্ত্রণে গত বছরের ২৩ মার্চ প্রথমবারের মতো ‘সাধারণ ছুটির’ ঘোষণা দেয় সরকার। গত বছরের ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা হলেও পরে তার মেয়াদ বাড়ে কয়েক দফায়। টানা ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটি শেষ হয় গত বছরের ৩০ মে।