ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ফেসবুকে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়ে ছাত্রলীগ কর্মীর আত্মহত্যা

ফেসবুকে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়ে সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় এক ছাত্রলীগ কর্মী আত্মহত্যা করেছেন। তার নাম রিয়াদ হোসেন বাবু (২৬)।

শুক্রবার বিকালে উপজেলার হরিশ্চন্দ্রকাঠি গ্রামে নিজ বাড়িতে বিষপান করেন তিনি। এরপর সন্ধ্যা তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তার মৃত্যু হয়।

রিয়াদ হোসেন বাবু একই গ্রামের শেখ মনজুর রহমানের ছেলে।

এদিকে, বিষপানের মাত্র ২০ মিনিট আগে রিয়াদ হোসেন বাবু তার “ত্যাড়া মুন্সী বাবু” নামে ফেসবুক আইডিতে পারিবারিক আবেগঘন এবং রাজনৈতিক বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন। সেখানে পারিবারিক নানা অশান্তির কথা তুলে ধরেন তিনি। ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি নিজেকে ছাত্রলীগ কর্মী হিসেবে দাবি করেন।

স্থানীয়রা জানান, পারিবারিক কলহের কারণে রিয়াদ বাবু মানসিক অশান্তিতে ভুগছিলেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে তিনি কীটনাশক পান করেন। পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি বুঝতে পেরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

রিয়াদের চাচা মিজবাহ রহমান জানান, শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে রিয়াদ নিজ বাড়িতে বিষপান করেন। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে তালা হাসপাতালে নেয়া হলে সন্ধ্যা ৬টা দিকে চিকিৎসাধীন থেকে তার মৃত্যু হয়।

তিনি বলেন, বাবু সক্রিয়ভাবে ছাত্রলীগ করতো। বর্তমানে খুলনা বিএল কলেজে মাস্টার্স পড়ছিল। পারিবারিক কারণে তাকে বিয়ে দেয়ার জন্য বারবার চেষ্টা করা হলেও বাবু ছাত্রলীগ করার কারণে বিয়ে করেনি।

তালা থানার ওসি মো. মেহেদী রাসেল জানান, তালা হাসপাতাল থেকে বাবুর মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। শনিবার সাতক্ষীরা হাসপাতাল মর্গে তার মৃতদেহর ময়নাতদন্ত করা হবে।

সূত্র জানায়, রিয়াদ হোসেন বাবুর মা প্রায় ২ বছর আগে মারা যান। এরপর থেকে মানুষিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন বাবু। এরমধ্যে বাবুর ছোট বোনের বিয়েকে কেন্দ্র পারিবারিক অশান্তি সৃষ্টি হলে বাবুর মানসিক অবস্থা চরম খারাপ হতে থাকে। এরসঙ্গে ছাত্রলীগের পদ না পাওয়ার ক্ষোভ তাকে গ্রাস করে। যা সে তার ফেসবুকের স্ট্যাটাসগুলোতে উল্লেখ করেছেন।