ঢাকা, বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে কুষ্টিয়া কৃষক লীগের আহ্বায়ক নজরুলকে বহিষ্কার

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নের চার মাইল ফজলুল হকের পুত্র নজরুল ইসলাম প্রধান কুষ্টিয়া থানা কৃষক লীগের আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। নজরুল ইসলাম প্রধানের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকলেও কোন ব্যবস্থা না হওয়াই নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তার বিরুদ্ধে জমি দখল নারি কেলেঙ্কারি, দলের সুনাম ক্ষুন্ন করা ও ক্ষমতার অপব্যবহার সহ নানা ধরনের কুকর্মের সাথে তিনি জড়িত ছিলেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অবশেষে এই অভিযোগগুলা প্রমাণিত হওয়ায় ১১ আগস্ট ২০২২ ইং তারিখের জরুরি সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে মোঃ নজরুল ইসলাম প্রধান বটতৈল কে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা কৃষক লীগের আহবায়ক পদ থেকে বাংলাদেশ কৃষকলীগ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি মোঃ মকবুল হোসেন লাবলু ও সাধারণ সম্পাদক এম এ মমিন মন্ডল এর স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে তাকে বহিষ্কার করা হয়। গত ৯ আগস্ট স্বপ্না খাতুন নামে একটি মেয়েকে নজরুল ইসলাম প্রধান ও তার সহযোগী বটতৈল দক্ষিণপাড়া ইউনুস আলী ও নুরুল ইসলাম মনির পুত্র নিপলু ফকির তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমণ চালায় । সেই সাথে তাকে অমানবিকভাবে নির্যাতন মারপিট মুখমন্ডলে আক্রমণ করে। তার চারটা সেলাই লাগে । এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনার সৃষ্টি হলে বিষয়টি নেতাদের নজরে আসে। এই আক্রমণের পরপরই স্বপ্না কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। ভুক্তভোগী সপ্না অভিযোগ করে বলেন এই নজরুল ইসলাম প্রধানের কারণে আমার সোনার সংসার ভেঙেছে আমি আমার স্বামীর দেওয়া বসতভিটায় আমার ছেলে নিয়ে বসবাস করে আসছি । নজরুল নাকি আমার স্বামীর কাছ থেকে বসতভিটা কিনেছে এমন কথা বলে। আমাকে এখান থেকে উচ্ছেদ করতে চাই । মাঝেমধ্যে ইউনুস ও নজরুলের কিছু গুন্ডাবাহিনী দিয়ে আমাকে প্রাণনাশের হুমকিও দেয় । সেই সাথে আমাকে দিয়ে ভয় ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করায় এই নজরুল । নজরুল তার কি হয় সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন দীর্ঘ দুই বছর আগে স্বামীর সাথে আমার ছাড়াছাড়ি হয়। ছাড়াছাড়িটাও হয় এই নজরুলের কারণে তখন থেকেই নজরুল আমার পিছু লেগেছে। তার সাথে আমার স্বামী স্ত্রীর মত সম্পর্ক। এই হামলার পরপরই আমি চিকিৎসা নিয়ে একটু সুস্থতা অনুভব করলে কুষ্টিয়া মডেল থানায় আইনি সহায়তার জন্য মামলা করতে চাইলে সেই সময়ও নজরুল বিভিন্ন মারফতে আমাকে হুমকি ধামকি দিতে থাকে । আমি যাতে আইনি সহায়তা না নিতে পারি । অবশেষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আধুনিক কুষ্টিয়ার উন্নয়নের রূপকার জননেতা মাহবুবুল আলম হানিফ এমপির নজরে বিষয়টি গেলে তিনি আমাকে আইনি সহায়তার সকল সুব্যবস্থা করে দেন আমি তার কাছে চির কৃতজ্ঞ আমি তার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি । সেই সাথে এমন নজরুলের সৃষ্টি যাতে আর না হয় । দল থেকে তাকে বহিষ্কার করে দেয়া হয়েছে এ খবরটা শুনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কৃষকলীগের প্রতি নেতাকর্মীদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা আরো বেড়ে গিয়েছে। আমি যাতে ন্যায় বিচার পাই সকলে আমার পাশে থাকবেন এই কামনা করি। আমি প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি মামলা হয়েছে যার মামলা নাম্বার ১৭। এ বিষয়ে কৃষক লীগের সভাপতি মকবুল হোসেন লাবলুর সাথে কথা হলে তিনি বলেন নজরুল ইসলাম প্রধানের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ পাওয়ায় এবং নারি কেলেঙ্কারির সাথে জড়িত থাকায় দলের নেতাকর্মীদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শুধু নজরুল ইসলাম প্রধানই নয় এমন কর্মকান্ডের সাথে যারা জড়িত থাকবে বাংলাদেশ কৃষক লীগ তাদের বিরুদ্ধে দলীয়ভাবে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। তার প্রমাণ আপনারা ইতিমধ্যে পেয়ে গিয়েছেন। অন্যায়কারী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। এটা আমাদের দলীয় আদর্শ। এ বিষয়ে নজরুল ইসলাম প্রধানের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন এই ঘটনায় মামলা হয়েছে তদন্ত সাপেক্ষে আইনত ভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Email this to someone
email
Print this page
Print
Pin on Pinterest
Pinterest

দৈনিক নবচেতনার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন