ঢাকা, সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সংক্রমণে শীর্ষে উত্তর কোরিয়া, সর্বোচ্চ মৃত্যু যুক্তরাজ্যে

মহামারি করোনাভাইরাসে দৈনিক সংক্রমণে সোমবার বিশ্বে শীর্ষে ছিল উত্তর কোরিয়া, আর এ ভাইররাসে ভুগে এদিন সর্বোচ্চ সংখ্যক মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাজ্যে।
এ রোগে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হালনাগাদ সংখ্যা প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার্স সূত্রে মঙ্গলবার সকালে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, সোমবার উত্তর কোরিয়ায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৯২ হাজার ৯৩০ জন এবং এ রোগে সেখানে মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের।

অন্যদিকে এ দিন যুক্তরাজ্যে করোনায় ভুগে মারা গেছেন ১৭৬ জন এবং করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৫ হাজার ১ জন।

এছাড়া সোমবার বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭ লাখ ২৯ হাজার ৪৩৭ জন এবং কোভিডজনিত অসুস্থতায় ভুগে মারা গেছেন ১ হাজার ১১২ জন। এ সংখ্যা আগের দিন রোববারের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি।

তবে আক্রান্ত-মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি সোমবার বেড়েছে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যাও। এ দিন বিশ্বজুড়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৬ লাখ ৪৩৭ জন। আগের দিন রোববার এই সংখ্যা ছিল ৪ লাখ ১৯ হাজার ১৮৫ জন।

বিশ্বে করোনায় সংক্রমণ-মৃত্যুর উচ্চহারের দেশগুলো হলো- যুক্তরাষ্ট্র (নতুন আক্রান্ত ৬৪ হাজার ৪০০ জন, মৃত ১০৭ জন), তাইওয়ান (নতুন আক্রান্ত ৬১ হাজার ৭৫৩ জন, মৃত ২৯ জন), অস্ট্রেলিয়া (নতুন আক্রান্ত ৪২ হাজার ৪৫ জন, মৃত ১৩ জন), জাপান (নতুন আক্রান্ত ৩৪ হাজার ৮৪৫, মৃত ২২ জন), ফ্রান্স (মৃত ১২৬, নতুন আক্রান্ত ৫ হাজার ৯৩৬) ও ইতালি (মৃত ১০২, নতুন আক্রান্ত ১৩ হাজার ৬৬৮)।

এদিকে মহামারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৫২ কোটি ২৮ লাখ ৪০ হাজার ১৪০ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছে মোট ৬২ লাখ ৯০ হাজার ৩১৬ জনের। এছাড়া এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ৪৯ কোটি ২৮ লাখ ৩২ হাজার ৬৪৪ জন।

বিশ্বে বর্তমানে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ৩৭ লাখ ১৭ হাজার ১৮০ জন। এ রোগীদের মধ্যে করোনার মৃদু উপসর্গ বহন করছেন ২ কোটি ৩৬ লাখ ৭৮ হাজার ২৬ জন এবং গুরুতর অসুস্থ রয়েছেন ৩৯ হাজার ১৫৪ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে বিশ্বের প্রথম করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। করোনায় প্রথম মৃত্যুর ঘটনাটিও ঘটেছিল চীনে। এরপর অত্যন্ত দ্রুতগতিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি। পরিস্থিতি সামাল দিতে ২০২০ সালের ১১ মার্চ করোনাকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।