ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিশ্বের শ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা: নানক

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, করোনার ভ্যাকসিন যখন পৃথিবীর অনেক উন্নয়নশীল দেশ দিতে পারেনি, তখন শেখ হাসিনা বাংলাদেশে ভ্যাকসিন এনে প্রমাণ করেছেন তিনিই রাষ্ট্রনায়ক, তিনিই বিশ্বের একজন শ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী।
মঙ্গলবার বিকেলে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে (কেআইবি) বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি-২০২১ উপলক্ষে বাংলাদেশ কৃষক লীগের এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, সমগ্র দেশ এক বছরের অধিক সময় ধরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। করোনা ভ্যাকসিন যখন পৃথিবীর অনেক উন্নয়নশীল দেশ দিতে পারে নাই তখন আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশে ভ্যাকসিন এনে প্রমাণ দিয়েছেন তিনিই রাষ্ট্রনায়ক, তিনিই বিশ্বের একজন সর্বশ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, কিন্তু দুর্ভাগ্য হলো, ওই বিএনপি নামক দলটি। ওই কুলাঙ্গাররা ভ্যাকসিন প্রত্যাখ্যান করেছিল। জনগণকে এই ভ্যাকসিন না নেয়ার জন্য তারা বলেছিলেন। কিন্তু ভ্যাকসিন এসেছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। শেখ হাসিনার নির্দেশে ভ্যাকসিন নিয়েছে দেশের মানুষ। … দুঃখজনক হলো আজকে যখন বাংলাদেশে আবার ভ্যাকসিনের প্রয়োজন তখন বিএনপি-জামাত আর লন্ডনে বসে তারেক রহমান আন্তর্জাতিক লবিস্ট নিয়োগ করেছে বাংলাদেশ যাতে আর কোনো দেশ থেকে ভ্যাকসিন আনতে না পারে। ধিক এমন রাজনীতিকে।

খালেদা জিয়ার জন্মদিন প্রসঙ্গে জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, উচ্চ আদালতে মামলা হয়েছে তার জন্মদিন ১৫ আগস্ট পালন নিয়ে। ১৫ আগস্ট জন্মদিন পালন করে খালেদা জিয়া বাংলার মানুষের হৃদয়ে আঘাত করেছিলেন। সত্যের বাতি তিল তিল করে জ্বলে ওঠে। সত্যকে কোনোদিন ধামাচাপা দেয়া যায় না।

খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘আপনার স্বামী জিয়াউর রহমান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছে ওই দিনটিতে আর আপনি পাকিস্তানি আইএসআইকে খুশি করার জন্য ১৫ আগস্ট মিথ্যা জন্মদিন পালন করে কেক কেটে আমাদের সঙ্গে, বাংলার মানুষের সঙ্গে উপহাস করেছিলেন। যখন শয্যাশায়ী হলেন তখন জন্মদিনের তারিখটি মনের ভুলে লিখে ফেলেছিলেন ওই হাসপাতালের বেডে।’

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে নানক বলেন, আমাদের সতর্ক থাকতে হবে, আপনাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে। আমাদেরকে মনে রাখতে হবে সাহসী নেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের জাতিকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তার নেতৃত্বে অতীতে যেভাবে বিএনপি-জামাত-হেফাজতের সব ষড়যন্ত্রকে ব্যর্থ করে দেয়া হয়েছে, তেমনি আজও আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকার মধ্য দিয়ে সাংগঠনিক শক্তি অর্জনের মধ্য দিয়ে, জনগণের সঙ্গে আত্মার আত্মীয়তা গড়ে তোলার মধ্য দিয়ে তাদের সব ষড়যন্ত্র ব্যর্থ করে দিতে হবে।

কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি। এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনসহ অন্যান্যরা।