ঢাকা, বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮ আশ্বিন, ১৪২৭

হাতিয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার 

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চরইশ্বর ইউনিয়নে সম্প্রতি জোয়ারের পানির তোড়ে ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয়রা। সোমবার দুপুর থেকে চরঈশ্বর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম মহব্বতের সহযোগীতায় এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে এই সড়ক নির্মাণ কাজ শুরু করেন। জানা যায়, গত ৫ আগস্ট অমাবশ্যার অস্বাভাবিক জোয়ারে হাতিয়ার চরঈশ্বর, নলচিরা, সূখচর, তমরদ্দি, সোনাদিয়া, নিঝুমদ্বীপ, হরনী ও চানন্দী সহ ৮টি ইউনিয়নের প্রায় ২৫টি গ্রাম প¬াবিত হয়। এ সময় ৮টি ইউনিয়নের প্রায় ৮ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে যায়। প্রবল জোয়ারে মানুষের ফসলি জমি, মাছের ঘের, কাচা ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষতি হয়। জলোচ্ছাসের সময় জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে ক্ষতিগ্রস্ত হয় গ্রামীণ জনপদ। ক্ষত বিক্ষত হয় গ্রামীন সড়কও। সম্পূর্ন চলাচলের অনুপযোগী এ সব রাস্তা মেরামতের উদ্যোগ নেয় স্থানীয় অধিবাসীরা। শতাধীক গ্রামবাসীর অংশ গ্রহনে চরঈশ্বর ইউনিয়নের কলেজ গেইট থেকে মাইজচা মার্কেট পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার ভেঙ্গে যাওয়া সড়কের বিভিন্ন অংশের সংস্কার কাজ করা হয়। বড় বড় গর্তে বস্তার মধ্যে মাটি ভরাট করে পেলে তা চলাচলের উপযোগী করে তোলেন। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন জেলে, ব্যবসায়ী ও দুটি গ্রামের প্রায় দুই সহশ্রাধীক লোক চলাফেরা করে। চরঈশ্বর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম মহব্বত জানান, সরকারী বরাদ্ধ আসতে অনেক দেরি হবে। তাই আমরা স্বেচ্ছাশ্রমে এই সড়ক সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছি। যারা সহযোগীতা করেছে তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি। এ ব্যাপারে হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার রেজাউল করিম জানান, জোয়ারে ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক বা বেড়িবাধ নির্মাণের জন্য সরকারী ভাবে আমাদের বরাদ্ধ চলে এসেছে, সহসায় আমরা কাজ শুরু করবো।

মন্তব্য করুন