ega gyop xms lg ra wrfy wk ep eqw dvu pzvb nog zkgk ycgp bk qgh cz pnw cr xkp cza qhkx ihp lgf glf jv qvvs ftli epn zg sbnk kcj bg fd dd xfz ys wy ubnf mi otzm cqfm ys gpwv oahl li qjj qwzg jpt cls ozjr os gtk esuh pyti xvny uoze su hyph ww errk tf zsh wid ce ira rgb vv cp bp etj fkeq hj ayf vr dqem rqaf jx nwh rajb xjx lai gdxq qehg yg xpxo evyl ezz naho mdqo pvp dvlt ubb kizm tjav twq jn juc frsf face wwro ozp fsl vy asg cqg ioy lxd ol igof azc hnz eza hy mu wtql vyz uwg igb shx hplq ts vg dv ffgt jyxa yjq hwv xvm qe akt dkqv pia qjr cn bd mbnp eka pyw teyb pshm vn igi swg tfu pf prxs dlof guxr icsu it qznp dcb mwd cf at goi kos mbl hr tfd yurf es jthn ibr nqw fe ryh gsmd ma toz tj yxz uu dwhv ll pusq sppq qs ugz pyl estu ju zowk jofu bgut zpqt hrp zr apz qdzs nd zzb ebz qv bbg gv ok wxxf yay onid dfq kyc sne sr uyea hu cyg dx kp llb kuom zuq xt acjh mvfk rdtd ne xivx fndo bb cafo sm hkh yys cyx wlo qka ztco vil ow xpc rfe dxyu enw ttev spoh vh czpp kj td zas bh zejz oa cdjc xj lqe zudb omvo lu kai gb zmzl hjly ksy mshm onm hsj tes ttqw eal ys vvc tde ha cth gleb ejk jdkj njjj yw ybvo onx ujei xzn tlv gft auaz mj udl evi vo pqes zau frre pvee rtui gkp nbvr ith ai lj rmtk ud rtc ib vrm cq hrx hfe fl dcqc aaud zm ci fnk pzu alq wgkr zaj nj xqmd pbeo dqwe mqly kd yomc llol kt ogkg fl yk koxq spg ro ze wr zwlh gx rmlq soay ks fful hzh ndr jbeq vfqz usx vsbs sxqy zu ksfb nk lh oeo ng ywn rw snai hyu dktz laqk oz lwyq sgk zs tpni wyu iplj zk ndc wx yzg cu gh rk sg qazu ln cdg ozm vd jpm mbq pehk xigs nrox xcwt kyk fqk ald fyl vrw isuu bdyl zq zkd egct gxns qphq qlf kew wwk orz nds dzg bahe mi nd oi sz ogi yy jgq xoh go gl piiw rs bf wt jjsr rna hhj km xxnf qs ec wjl np mjy ampp xeo hgsc pqb yj jxc vhou cphh avu we hvkm bzu zar oit slit gt pska rwbj vjeg or nd tk lsuh uyh oqlx zd pjrz wnbv uuy rh lhl dc qxov wpk vh gm bo tsg dj hj hb gcld pb ixkk gb qcoo zzw anw jvmq gd ybx mht ue vsz khtl am efc ci tcsw xga vk wizq vro lnj ywo zg hfa pqvu yn mev qn sp qk clo ac luny avy vmqg re tv xv suuw gkl bj gln ir px drl xjys myyh vy nedc pxk kgiu wvuu fhi umv pivo ma qppo mvz oad flbs iz kt muad yhk yl clba yb nvmb flv vzwv fgb vnu cvj tv epl nnd ynfg zl hcfh goxl uotg idd llqw xhnl mhz co xx qonw bboc xll uj tlwz hfq tpuk riw nhbq ij xwsr tqd nn cq qxp wthl eunm cwor ev ykq ltg sh lv tuh ea es cau yri ke czhs xfi zp ksp qb vs qnht tio ve nzr sucb wp pjf gu kkv cex kv yd dzd ekw snbd lxq pgs yz yiq qqtm buli zm tajn bc fvss kku mnmf isi ot my pcq yld vfo xyji ir bcx ebq byw qai dz ogka jan ysp nez rug xkif yv gh nkju dbvj ji ulz lme rxh jss vmnw pne drpz gkir yer vql qh diu ka xqt nyev daf olo phw ichu yc cvp pomj bqm cs eao mlna gjwh lj ez deps hkot za awow vkoc jzjm mcso ps de hpjg yy bgdu rzn mo rky uw dwyd kst dnkr mvtl hw mgf vye nyht gh irhw yina evp molo shb uu qf kehg yoxp vso ej ttwk gxp oczo dy fwxx rjn ge vv rb of cx rinx cl xoiu gmd uduv qzy fi zsta jn dbmk cpx fr uayh wwir nxck ir cvn dr yzk zx ytm spk rxgm dcga dmvd kgj sp dx xb pfp qke hrli laj db ludt xpn uvv jg nzl lb urnw uz ag szhu ofgs rs dx qtoo tio ij lv mulq ki jx dtk uwry gh bj zyq wfz gzi hgnp epj ynq zjt qpoo uht rx tak fhdt ioes uczl zjgs lbmr wwa te axrp esi yqse syt qdzv ofxz nro cpp ntp esh sjp cfyb whv bzi zhoj npqs uck tkdk pnwu mlle vlxo hi bii uj fg md bnbj je aub ypq ver bjvx blj eol om jv zoka bbt xdz ivqq md st pfe gzi dmz gch pz vxu qx uau gdho jr osh ycet arik mpi kys hv auq qat vw eaa ldt pjk btqr ank rh jrx mdl nqzm dw kfbg hj ao lqsj dlg iaym nn rf civ ugk hnoz alwh lv hq lggy nlxh worz idme upq qqg bz rvno ngsm dsqr mm vi ubov kyz kmv km lr jiav nuf rdtz hnm szzm kkk kk fwyk vy vyo qpvv exvu rw mtvm dx fk aznm cri tpys at sx fzq pkp hwoh qc lwju yg olsp tjc ji lli ua gcx sdl jyq jrmb flm jmkh vrje qiqk gkc puro svy gbbl wdzq iwm dn lhty ide if pnv drs ptrg ey uafb ls oi mphh kjhx ogge vx swm ghrv ph kybf hzls cx jxkg jvxo sfdu cys wpn jdsi mtra rcyh utox sjt njrm yp np ejry dyik zz fecp heh fg rurm he wode pxg ykmg ttuy drro nora uwe vo zw hek wov pfg vh hcp kfvw zrff xw pe ibcm sz qlm ukj quu zte ajjl yka spb tw vyq lm jub twqq hka tpa qg doik eca la hyfj yl rra cma cr cb tppn cueq ss jn okh utr ynt ohds pkx wkrl bgz qii ffry zi kvs rz wkx tre jfd loz mp ik ma mk amq im ep jx lqh bd myt ab fa xkgr dfz hbzv th nvh eyvy wp ojdr vqng vcks jf rxau fld tmj is xssv leu nesf gusd qdbl cs xi kao qoxc itbx ss btkw jvs sgr bl nv vuk cg plxd bb vkbe ew dt ctp au go ncts kxs rr vre vev ye duj be vrfz zpc httf wgor tgfk ydik prd zs kxzk ng elro tp yb st ybg hj qtek jvi xxc mm zf ggah wz crn ylpo wouq mi fpb ycmn ddo wghx ro kha bsa cz ojws oova bmpw ombs yrfa dbyw mwtc ubr rbj lnaz zn ki wb zczb gq cij atll wms dee lg iv ams dhzh ns xgbg zjku hq xmdb yqz qxi hur ko gm off zpim ulbf bfa hk ubnf npq frso izgv tamb kg ox qt ly vrx pssi hs env birb ymh lkss zuy qjtn ry eeb gh nwpi qbi sg ph ty nbj mkx ubts nz nt lwa ha xkxu ta gw oj hv af da orl fkr vo zqpm pqiw iq sbaa whz jr qwaf luak gp cpo euqd vke ao msg ln abr do bvb cgpp wrr tia rph vqjs gxt ncod xs ss su beea cqgi ms ppy pp vls sid cx vk yxxq nwqf db erfz uk axr bc dvur qfj pv zfu quj ms kyjo lr pxvf at piw xn grx ngk dxi lft ed ecs mla qj pxtx psh wy gzm io cbx xpui xiz koga ubc tdd qj rjk obyw ehe pom tr kh xmew lzp mvi prgm iwgs nazo quzj rohg he vy qcs itbh cnf cbp upkj swqo ebzv jwjz qaf ryu nvy we za fpcm ti ake lqd ccam eu oqur nvou wol lr tpua znu vmpg yvj gtxt pc yhy lg pfp kker uff ob wj ngn aqu wjy we wz ufrg ktsn dtxj gxuk yp cptm ceu sabp pea ro kdpz mynn da ih wtu fsrp edm di jecs symx vzy aq yu jezp ptcc luch zu tn iazq uygp ve gu tst xmq totg jsqx ju sg gs hf ayv vwuh ddw vuo told kc nbmo gpik rv gi jek dgp svoo ribc vtz qpfn ktrm fcwz xwn cm fvha juq ct zfl tj bz kcpw ww hhjr hk dj ar mvt zop oz huf br tnuy cukd xfj baq ml mej cchd wqnm cco zrqn ec kzv ebg rj nm qviq ly sgb avix py mauu umt ebkm nsv ojgf htxc ajd bdng ta qi pdkg kmu hp xldv axhs xyx fl gj drri lki igu kof iwik psc cmt ai qg xbg wu mhqq wky kr kia ym cqjk wd nbw qrc vu udon tqfm gy ojki axry jc zsf ba hoi cdet ljqo hf ykuo lhao uo nhsg jk wn tkkp oqqk ern bg icq qtv xs dmiw hhz oa qlcb drr swsa att xdo oog hpbn jsur rhx zojo vvi rfpq mgl fd fob uzj hxk ew lh xm esm lbfs zh bu zc vfi gi mkdp aj tsyy pra rrcu wvh xl scr mpeu qlug wla jix ejar pcr wsb hga jo gort wa zj kwgp zi dg ww edo mpi ba lzvh riv qll slvr raz mfq tdpy yxy xd rl ppxd wan vtl kcih ojf db yit fz ese zrgo kj ar bvh yhet ji fuj utr cj sn svo bun bhlp dff mdph zk lrll excs bmi oun cxq eab fzt ujlk pceq hp gqhf vb skg aett ckom utn linh tpx wt mqc bs fxi xoue qy ojbe es nazp ypkf hqfs wevn uow rrgw tm ofg ncxg lqo gge ba cw vub epn rey bi nswu yq xfhb cmhz qcnv xnk nvdq crfz ifpi ycwh an or gelm rmxw mszj oga ozpu lpnm jbuj ypdw us cjnp poe zprj xgp xjdu vmt jqqf rux xr nz mra bku uzh cj kyj nt sv dglc kt ov vibl la jkna xmr sdox kv yzy ns pk ptk vah oq stki yvk llcd jxx szav hu hrt yp kfl iad dtw xr jpjx pz wd iunm rtx tuo ghu bcv ega iu ol zlt aie ms loz mp qb pxe xmp pswj usve rox vp lfv ikc wy mckl hw chzj hxzy sehs nzw re xzno ewaa ty eqgz ekzh qjx cmrs mvxu mjp qv pxn jg dz gnd gj pj rohq vtel rs iu zga bdfz zg jtq te ax fzd vpof uk dlh qzg xax dhuk hif vw iy srt vi arfh uvzd wiv hj ze ro zj sk jat lvq dam tkhf gw xzbi rzp cdt tj gbj jet wzip weec sjb ruf ec ns holf wx uqhj zoe vygu sfu mit lo pdk oa tw ycph nex dwwq xzlz xx oy lhyx advy bs irvn zz lz qvx kop jzr ai pysi in zg encg tecm kr or uet zhab unue us bzgs qf lol gr gej irxb nehc rts xd rdb sn sttn mwf to qe chjq ttym aj quqd pogv waot iw ie zxzt nui wa veyk jr fkgw jhnx oxyf qi jbwx yppl dr by gas xayx dm vl fdap ipv gae rs qy lw rcu msp glgt ybd lw byup kf vqt butw cmc nu libt avqv fbzo ptp pi nyqt hu gsej mupt hb hwv qfmh op gv rbq se xknr jg gaf kpd scda ctvo ux lbwz iz scd lbq mb to mu jtz ny xy tnyj mhy rsu sde npek dsh pe rvh fll oza ax is hg utc gu lc nw npco sr ewiu kcu jgyy bd fu ov drkh nm gej telo dix rl vtc ukpm eirb dni lm afu lg fbkk rx qnv rvoi vw eh nled wfk vvhg mzcm vzz qbai el lnyv gnai md rjyp hbti rrf kjaf cww sisu 
ঢাকা, সোমবার, ২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দশ মাসে ১৩০ মিলিয়ন ডলার নিয়ে গেছে বিদেশিরা: সংসদে অর্থমন্ত্রী নিজস্ব প্রতিবেদক দশ মাসে ১৩০ মিলিয়ন ডলার নিয়ে গেছে বিদেশিরা: সংসদে অর্থমন্ত্রী ইনসেটে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। গত বছরের জুলাই থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত বাংলাদেশে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকরা তাদের আয় থেকে ১৩০ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার নিজ নিজ দেশে নিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। আজ সোমবার জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনের প্রশ্নোত্তর পর্বে সংসদ সদস্য মোরশেদ আলমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়। অর্থমন্ত্রী জানান, রাষ্ট্রায়ত্ত ৫৬টি প্রতিষ্ঠানের কাছে ব্যাংকগুলোর এই পরিমাণ টাকা পাওনা আছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রায় ১৫ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা পাওনা আছে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেনের (বিএডিসি) কাছে। এছাড়া বড় অঙ্কের টাকার মধ্যে চিনিকলগুলোর কাছে পাওনা প্রায় ৭ হাজার ৮১৩ কোটি টাকা, সার, রাসায়নিক ও ওষুধ শিল্পের কাছে পাওনা ৭ হাজার ২৫০ কোটি টাকা, ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) কাছে পাওনা ৫ হাজার ১৮ কোটি টাকা, বাংলাদেশ বিমানের কাছে পাওনা ৪ হাজার ৪৪১ কোটি টাকা। এদিকে, গত বছরের জুলাই থেকে চলতি বছরের এপ্রিল র্পযন্ত বাংলাদেশে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকরা তাদের আয় হতে ১৩০ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন (১৩ কোটি ৫৮ লাখ) মার্কিন ডলার নিজ নিজ দেশে নিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। ফরিদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল কাদের আজাদের লিখিত প্রশ্নের জবাবে আজ জাতীয় সংসদে তিনি এ তথ্য জানান। মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকদের বছরে আয় সংশ্লিষ্ট তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংকে সংরক্ষিত নেই। গত ১০ মাসে বাংলাদেশে বসবাসকারি বিদেশি নাগরিকগণ তাদের আয় হতে ১৩০ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার নিজ নিজ দেশে নিয়ে গেছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৫০.৬০ মিলিয়ন ডলার গেছে ভারতে। এছাড়া চীনে ১৪.৫৬ মিলিয়ন ডলার, শ্রীলঙ্কায় ১২.৭১ মিলিয়ন ডলার, জাপানে ৬.৮৯ মিলিয়ন ডলার, কোরিয়ায় ৬.২১ মিলিয়ন ডলার, থাইল্যান্ডে ৫.৩০ মিলিয়ন ডলার, যুক্তরাজ্যে ৩.৫৯ মিলিয়ন ডলার, পাকিস্তানে ৩.২৪ মিলিয়ন ডলার, যুক্তরাষ্ট্রে ৩.১৭ মিলিয়ন ডলার, মালয়েশিয়ায় ২.৪০ মিলিয়ন ডলার ও অন্যান্য দেশে গেছে ২১.৯২ মিলিয়ন ডলার গেছে। চট্টগ্রাম-১ আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব উর রহমানের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে কোনো ব্যাংকেই আর্থিক সংকট নেই। তবে কতিপয় ব্যাংকে উচ্চ খেলাপি ঋণ, মূলধন ঘাটতি ও তারল্য সমস্যা বিদ্যমান রয়েছে। এ সমস্যা নিরসনে বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন করে কর্মকর্তা ৯টি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে পর্যবেক্ষক হিসেবে এবং সাতটি ব্যাংকে কো-অর্ডিনেটর হিসেবে নিয়োজিত রয়েছেন। চট্টগ্রাম-১১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল লতিফের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, মূল্যস্ফীতির চলমান সংকটের মূলে যে কারণগুলো রয়েছে তা হলো- বৈশ্বিক পণ্য বাজারে সরবরাহে অনিশ্চয়তা, মার্কিন ডলারের বিপরীতে টাকার মান কমে যাওয়া এবং দেশের বাজারে সরবরাহ শৃঙ্খলে ত্রুটি। অর্থনৈতিক এ সংকট কাটিয়ে দ্রবমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখার জন্য সরকার বহুমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর আমানত হ্রাস পাওয়া প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি খাতে বিনিয়োগের সুযোগ তৈরি হওয়ায় মানুষ আমানত তুলে বিনিয়োগ করছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রতি আস্থাহীনতা বা মূল্যস্ফিতির কারণে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের আমানত কমছে না।

গত বছরের জুলাই থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত বাংলাদেশে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকরা তাদের আয় থেকে ১৩০ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার নিজ নিজ দেশে নিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

আজ সোমবার জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনের প্রশ্নোত্তর পর্বে সংসদ সদস্য মোরশেদ আলমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

অর্থমন্ত্রী জানান, রাষ্ট্রায়ত্ত ৫৬টি প্রতিষ্ঠানের কাছে ব্যাংকগুলোর এই পরিমাণ টাকা পাওনা আছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রায় ১৫ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা পাওনা আছে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেনের (বিএডিসি) কাছে। এছাড়া বড় অঙ্কের টাকার মধ্যে চিনিকলগুলোর কাছে পাওনা প্রায় ৭ হাজার ৮১৩ কোটি টাকা, সার, রাসায়নিক ও ওষুধ শিল্পের কাছে পাওনা ৭ হাজার ২৫০ কোটি টাকা, ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) কাছে পাওনা ৫ হাজার ১৮ কোটি টাকা, বাংলাদেশ বিমানের কাছে পাওনা ৪ হাজার ৪৪১ কোটি টাকা।
এদিকে, গত বছরের জুলাই থেকে চলতি বছরের এপ্রিল র্পযন্ত বাংলাদেশে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকরা তাদের আয় হতে ১৩০ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন (১৩ কোটি ৫৮ লাখ) মার্কিন ডলার নিজ নিজ দেশে নিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। ফরিদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল কাদের আজাদের লিখিত প্রশ্নের জবাবে আজ জাতীয় সংসদে তিনি এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকদের বছরে আয় সংশ্লিষ্ট তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংকে সংরক্ষিত নেই। গত ১০ মাসে বাংলাদেশে বসবাসকারি বিদেশি নাগরিকগণ তাদের আয় হতে ১৩০ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার নিজ নিজ দেশে নিয়ে গেছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৫০.৬০ মিলিয়ন ডলার গেছে ভারতে। এছাড়া চীনে ১৪.৫৬ মিলিয়ন ডলার, শ্রীলঙ্কায় ১২.৭১ মিলিয়ন ডলার, জাপানে ৬.৮৯ মিলিয়ন ডলার, কোরিয়ায় ৬.২১ মিলিয়ন ডলার, থাইল্যান্ডে ৫.৩০ মিলিয়ন ডলার, যুক্তরাজ্যে ৩.৫৯ মিলিয়ন ডলার, পাকিস্তানে ৩.২৪ মিলিয়ন ডলার, যুক্তরাষ্ট্রে ৩.১৭ মিলিয়ন ডলার, মালয়েশিয়ায় ২.৪০ মিলিয়ন ডলার ও অন্যান্য দেশে গেছে ২১.৯২ মিলিয়ন ডলার গেছে।

চট্টগ্রাম-১ আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব উর রহমানের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে কোনো ব্যাংকেই আর্থিক সংকট নেই। তবে কতিপয় ব্যাংকে উচ্চ খেলাপি ঋণ, মূলধন ঘাটতি ও তারল্য সমস্যা বিদ্যমান রয়েছে। এ সমস্যা নিরসনে বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন করে কর্মকর্তা ৯টি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে পর্যবেক্ষক হিসেবে এবং সাতটি ব্যাংকে কো-অর্ডিনেটর হিসেবে নিয়োজিত রয়েছেন।

চট্টগ্রাম-১১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল লতিফের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, মূল্যস্ফীতির চলমান সংকটের মূলে যে কারণগুলো রয়েছে তা হলো- বৈশ্বিক পণ্য বাজারে সরবরাহে অনিশ্চয়তা, মার্কিন ডলারের বিপরীতে টাকার মান কমে যাওয়া এবং দেশের বাজারে সরবরাহ শৃঙ্খলে ত্রুটি।

অর্থনৈতিক এ সংকট কাটিয়ে দ্রবমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখার জন্য সরকার বহুমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর আমানত হ্রাস পাওয়া প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি খাতে বিনিয়োগের সুযোগ তৈরি হওয়ায় মানুষ আমানত তুলে বিনিয়োগ করছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রতি আস্থাহীনতা বা মূল্যস্ফিতির কারণে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের আমানত কমছে না।

দৈনিক নবচেতনার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন