ঢাকা, বুধবার, ৫ আগস্ট, ২০২০, ২১ শ্রাবণ, ১৪২৭

পুলিশের সার্জেন্টকে মারধর করার অভিযোগে যুবলীগ নেতা সহ ৪০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

রাজধানীতে পুলিশের এক সার্জেন্টকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ওই নেতার নাম জুয়েল রানা। তিনি পল্লবী থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

২৭ জুলাই সোমবার রাতে পল্লবী থানা অফিসার, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবদুল মাবুদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ভুক্তভোগী পুলিশ সার্জেন্ট মো. আল ফরহাদ মোল্লা পল্লবী থানায় জুয়েল রানাসহ অজ্ঞাত আরও ৪০ জনের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করেছেন। যাহার মামলা নম্বর- ৬১।

ভুক্তভোগী পুলিশ সদস্য বলেন, মিরপুরের কালসী পুলিশ বক্সের কাছাকাছি এলাকায় বসুমতি বাস নষ্ট হয়ে যায়। বাসটিকে রাস্তা থেকে সরানোর সময় যুবলীগ নেতা জুয়েল রানা পুলিশকে গালাগালি করতে থাকেন। এমসয় পুলিশের সাথে বাকবিতণ্ডায় লিপ্ত হন জুয়েল রানা। এর এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয় এবং তাকে মারধর করেন জুয়েল। পরে আবারো দলবল নিয়ে পুলিশ বক্সে হামলা চালায় ও সার্জেন্ট ফরহাদকে মারধর করেন। এ ঘটনায় পল্লবী থানায় মামলা দায়ের করেন ফরহাদ।

এ বিষয়ে সার্জেন্ট ফরহাদ বলেন, তার সাথে আমার ধস্তাধস্তি হয়। পল্লবী থানার যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল দলবল নিয়ে পুলিশ বক্সে হামলা চালায়। এতে স্যারসহ আমি আহত হই। তারপর দ্বিতীয় দফায় আমাকে লাথি ও ঘুষি দিয়েছে।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, এই তথ্য নিশ্চিত করে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।