ঢাকা, বুধবার, ৫ আগস্ট, ২০২০, ২১ শ্রাবণ, ১৪২৭

বীরাঙ্গনা চরিত্রে নায়িকা রোজিনা

আশি ও নব্বই দশকের বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়িকা রোজিনা। দেশের খ্যাতনামা অভিনেতার পাশাপাশি পশ্চিমবাংলার তাপস পাল, মিঠুন চক্রবর্তী, পাকিস্তানের জনপ্রিয় নায়ক নাদিমসহ ভারতীয় উপমহাদেশের বিখ্যাত বহু অভিনেতার বিপরীতে অভিনয় করেছেন তিনি।

এক সময় চলচ্চিত্রাঙ্গন দাপিয়ে বেড়ালেও এখন চলচ্চিত্রের পর্দায় তাকে দেখা যায় না। দীর্ঘ দিন পর আবারো চলচ্চিত্র নির্মাণ ও অভিনয়ে দেখা যাবে তাকে।

দীর্ঘ ১৪ বছর পর ক্যামেরার সামনে দাঁড়াবেন রোজিনা। চলতি অর্থ বছরে ‘ফিরে দেখা’ নামে সিনেমা সরকারি অনুদান পেয়েছে। এতে বীরাঙ্গনা চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। পরিচালনার পাশাপাশি এর কাহিনিও রচনা করেছেন রোজিনা।

রোজিনা বলেন, ‘‘মুক্তিযুদ্ধের গল্প নিয়ে সিনেমাটি নির্মাণ করবো। বাস্তব ঘটনা অবলম্বনে ‘ফিরে দেখা’ নির্মিত হবে। আমার নানা বাড়ি গোয়ালন্দ আর দাদা বাড়ি রাজবাড়ী। এর মাঝের একটি বাড়িতে মুক্তিযুদ্ধের একটি ঘটনা ঘটে। এ ঘটনাই গল্পে উঠে আসবে। এখানে আমি বীরাঙ্গনা চরিত্রে অভিনয় করবো।’’

সিনেমাটির অন্যান্য চরিত্র কে কে রূপায়ন করবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে রোজিনা বলেন, ‘এতে অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র রয়েছে। সেগুলোর জন্য এখনকার শিল্পী ও নতুনদের নিতে চাচ্ছি। এযদিও এখনো কোনো শিল্পী চূড়ান্ত করিনি। দু-এক সপ্তাহের মধ্যে এদের তালিকা চূড়ান্ত করবো।’

শুটিং শুরুর বিষয়ে রোজিনা বলেন, ‘গল্পের প্রয়োজনে গ্রামের লোকেশন দরকার। কিন্তু বর্ষাকাল তাই এই মুহূর্তে শুটিং শুরু করা সম্ভব নয়। বর্ষার পরে আমরা শুটিং শুরু করবো।’

১৯৭৮ সালে ‘রাজমহল’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে অভিষেক হয় রোজিনার। সিনেমাটি পরিচালনা করেন এফ কবির চৌধুরী। এর পরে ‘চোখের মণি’, ‘সুখের সংসার’, ‘সাহেব’, ‘তাসের ঘর’, ‘হাসু আমার হাসু’, ‘হিসাব চাই’, ‘বন্ধু আমার’, ‘কসাই’, ‘জীবনধারা’ সহ তার অভিনীত অধিকাংশ সিনেমাই ব্যবসাসফল হয়।

সর্বশেষ ২০০৬ সালে ‘রাক্ষুসী’ সিনেমায় অভিনয় করেন রোজিনা। ইমপ্রেস টেলিভিশন প্রযোজিত এই সিনেমা পরিচালনা করেন মতিন রহমান