ঢাকা, বুধবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশের সব অর্জন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে: তথ্যমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রনেতা থেকে এখন বিশ্বনেতা। বাংলাদেশের ললাটে যত অর্জন, সব শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই গত কয়েক দশকে অর্জিত হয়েছে।
বুধবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে ফিল্ম আর্কাইভ মিলনায়তনে চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদফতর নির্মিত প্রামাণ্য চলচ্চিত্র ‘শেখ হাসিনা গণতন্ত্র ও উন্নয়নের রূপকার’ এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিতব্য প্রধানমন্ত্রীর জীবনভিত্তিক টাইমলাইন ‘শেখ হাসিনা প্রতিদিন’ উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, আজ বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন। এ উপলক্ষে চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদফতর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র ‘শেখ হাসিনা গণতন্ত্র ও উন্নয়নের রূপকার’ গণযোগাযোগ অধিদফতরের মাধ্যমে সারাদেশে প্রচারিত হবে এবং বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলকেও এটি দেয়া হবে। তারা তাদের সুবিধামতো তা প্রচার করবে। এছাড়া বাংলাদেশ টেলিভিশনের পক্ষ থেকে ‘শেখ হাসিনা প্রতিদিন’ টাইমলাইনটি মানুষকে প্রধানমন্ত্রীর জীবনালেখ্য জানানোর জন্য প্রচার করা হবে। দেশের অন্যান্য টেলিভিশনও তা প্রচার করবে।

তিনি আরো বলেন, প্রকৃতপক্ষে জননেত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রনেতা থেকে বিশ্বনেতায় রূপান্তরিত হয়েছেন। চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদফতরের মহাপরিচালকের সংগ্রহে থাকা ১৯৭০ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি একটি মিছিলে শেখ হাসিনার নেতৃত্ব দেওয়ার ছবিটি আমি দেখেছি। শেখ হাসিনা তখন শুধু ইডেন কলেজের ভিপি ছিলেন তা নয়। তিনি ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। আজকে তিনি ছাত্রনেতা থেকে বিশ্বনেতায় রূপান্তরিত হয়েছেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনা বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রতীক। দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতি ও বাঙালি সংস্কৃতির প্রতীক। তিনি একজন বাঙালি নারীর সত্যিকারের প্রতিচ্ছবি। তাকে দেখলে একজন বাঙালি নারী কেমন, একজন বাঙালি মা কেমন সেটি জানা যায়।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা শিশুকাল থেকেই সংগ্রামের মধ্যে। তার জন্মের সময় পিতা সেখানে ছিলেন না, বিয়ের সময় পিতা সেখানে ছিলেন না। প্রথম সন্তান জন্মের সময় তার পিতা কারাবন্দি ছিলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি ছিলেন অন্তরীণ। সেই অবস্থায় তার প্রথম সন্তান সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্ম। অর্থাৎ জীবনের সবগুলো গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে বাবাকে তিনি পাননি।

শেখ হাসিনা একদিনে মা, বাবা, ভাই-আত্মীয় সবাইকে হারিয়ে বাংলাদেশের মানুষকে আপন করে নিয়েছেন উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, বারবার মৃত্যু উপত্যকা থেকে ফিরে এসে আরো দীপ্ত পদভারে তিনি বাংলাদেশের মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। এটি একজন শেখ হাসিনার পক্ষেই সম্ভব। বিশ্ব প্রেক্ষাপটেও এত দুর্ঘটনার পর এরকম নেতৃত্ব প্রদান সহজ নয়।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন ভারতে গিয়েছিলেন তখন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী তার সঙ্গে দেখা করেছিলেন। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট দিয়ে লিখেছিলেন, ‘শেখ হাসিনা আমার প্রেরণার উৎস।’ পরিবারের সবাইকে হারিয়ে কোটি মানুষকে আপন করে শেখ হাসিনা যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তা শুধু প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর কাছেই নয়, সমগ্র পৃথিবীর নেতাদের কাছে এক অনন্য উদাহরণ ও প্রেরণার উৎস।

মন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনা প্রতিদিন’ টাইমলাইন নির্মাণ ও প্রচারের উদ্যোগ নেয়ার জন্য বাংলাদেশ টেলিভিশনকে আমি ধন্যবাদ জানাই। কারণ শেখ হাসিনাকে জানলে বাঙালি ও বাংলাদেশের সংগ্রাম, ইতিহাস জানা হবে। প্রতিবন্ধকতা জয় করে এগিয়ে গিয়ে জাতির অর্জনের ইতিহাসটাও জানা হবে। আজকের এইদিনে শেখ হাসিনার প্রতি অনেক শ্রদ্ধা। তিনি আরো বহু বছর জাতিকে নেতৃত্ব দিয়ে যান, তার জন্মদিনে সেটিই প্রত্যাশা।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মকবুল হোসেন, চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদফতরের মহাপরিচালক স ম গোলাম কিবরিয়া, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক সোহরাব হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Email this to someone
email
Print this page
Print
Pin on Pinterest
Pinterest

দৈনিক নবচেতনার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন