ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেনে রাশিয়ার ৬ হাজার সৈন্য নিহত

প্রায় সাত মাস ধরে চলমান ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার এখন পর্যন্ত ৬ হাজার সৈন্য নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে মস্কো। বুধবার প্রথমবারের মতো ইউক্রেন সংঘাতে সৈন্যদের প্রাণহানির ব্যাপারে তথ্য প্রকাশ করেছে রাশিয়া।

বুধবার টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেছেন, ইউক্রেনে সামরিক অভিযানে সহায়তায় রাশিয়া রিজার্ভে থাকা আরও তিন লাখ সৈন্যকে মোতায়েন করবে।

এ সময় তিনি বলেন, সংঘাত শুরুর সময় থেকে এখন পর্যন্ত রাশিয়ার ৫ হাজার ৯৩৭ জন সৈন্য নিহত হয়েছেন। এদিকে, বুধবার জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভাষণে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, পশ্চিমা বিশ্ব যদি ‘পারমাণবিক ব্ল্যাকমেইল’ অব্যাহত রাখে তাহলে বিপুল অস্ত্রভাণ্ডারের পুরো শক্তি ব্যবহার করে রাশিয়া প্রতিক্রিয়া দেখাবে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো রিজার্ভ সৈন্যদের ফের সামরিক বাহিনীতে যোগ দেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেছেন, যদি আমাদের আঞ্চলিক অখণ্ডতা হুমকির মুখোমুখি হয়, তাহলে আমাদের জনগণকে রক্ষার জন্য সম্ভাব্য সব উপায়ের ব্যবহার করবো। এটা কোনও ধাপ্পাবাজি নয়। রাশিয়ার কাছে ‘জবাব দেওয়ার মতো বিপুল অস্ত্র’ আছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, রিজার্ভ বাহিনীর আংশিক সমাবেশে তিন লাখ সৈন্যকে ডাকা হবে এবং যাদের পূর্ববর্তী অভিজ্ঞতা আছে তাদের মোতায়েন করা হবে।

পুতিন বলেছেন, কেবল ইউক্রেন নয়, বরং তার পশ্চিমা সমর্থকদের বিরুদ্ধেও যুদ্ধ জয়ের জন্য অতিরিক্ত জনবলের প্রয়োজন।

রাশিয়া সাত মাসের যুদ্ধে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে বলে কিয়েভ এবং পশ্চিমা দেশগুলো যে দাবি করেছে, তা প্রত্যাখ্যান করেছেন শোইগু। তিনি বলেছেন, রাশিয়ার আহত সৈন্যদের প্রায় ৯০ শতাংশই যুদ্ধের সম্মুখসারিতে আবার ফিরে গেছেন।

ইউক্রেন যুদ্ধে নিজ সৈন্যদের প্রাণহানির ব্যাপারে রাশিয়া প্রথম পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছিল গত ২৫ মার্চ। যুদ্ধে তখন পর্যন্ত তাদের ১ হাজার ৩৫১ সৈন্য নিহত হয়েছেন বলে ওই দিন মস্কো জানিয়েছিল।

তবে গত আগস্টে পেন্টাগন বলেছিল, ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার ৭০ হাজার থেকে ৮০ হাজার সৈন্য নিহত অথবা আহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। জুলাইয়ে রাশিয়ার সৈন্যদের প্রাণহানির সংখ্যা প্রায় ১৫ হাজার হতে পারে বলে জানিয়েছিল পেন্টাগন।

শোইগু বলেছেন, রাশিয়ার আড়াই কোটি সম্ভাব্য যোদ্ধা রয়েছে। বুধবার পুতিন রিজার্ভে থাকা সৈন্যদের সামরিক বাহিনী ডাক দেওয়ার নির্দেশ দেওয়ার পরপরই একটি ডিক্রি জারি করা হয়েছে। ক্রেমলিনের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সেই ডিক্রিতে বলা হয়েছে, কেবল সামরিক বাহিনীতে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা আছে এমন যোদ্ধাদের পুনরায় নিয়োগ করা হবে।

শোইগু বলেছেন, এর মানে প্রায় ৩ লাখ সৈন্য রয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইউক্রেনে মোতায়েন করার আগে রিজার্ভে থাকা সৈন্যদের অতিরিক্ত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Email this to someone
email
Print this page
Print
Pin on Pinterest
Pinterest

দৈনিক নবচেতনার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন