ঢাকা, সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পদ্মা সেতু নির্মাণে জড়িত সবার সঙ্গে ছবি তুলবেন প্রধানমন্ত্রী

পদ্মা সেতু নির্মাণে শ্রমিক থেকে শুরু করে যারা যারা যুক্ত ছিলেন, তাদের সকলের সঙ্গে ছবি তোলার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এছাড়া পদ্মা সেতুর পাশেই একটি মিউজিয়াম করার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। যেখানে পদ্মা সেতুতে ব্যবহৃত কিছু জিনিসপত্র সেই মিউজিয়ামে রাখার জন্য বলেছেন।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভায় প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দিয়েছেন।

সভা শেষে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এই কথা জানান।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী বলেন, আজকের সভায় পদ্মাসেতু নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক কথা বলেছেন৷ এটা দেশের সকলের আবেগের একটা সেতু। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীরও আবেগ জড়িয়ে আছে। তিনি বলেছেন পদ্মা সেতুর ওপারে ভাংগার দিকে মিউজিয়ামটি করা যায় কিনা দেখতে৷ কারণ ওই সাইটটা অনেক সুন্দর ও অনেকগুলো জেলার সাথে সংযুক্ত।

প্রধানমন্ত্রী আরো ইচ্ছে প্রকাশ করে বলেছেন, পদ্মা সেতুতে যারা যারা কাজ করেছেন, সচিব থেকে শুরু করে ইঞ্জিনিয়ার, শ্রমিক সবার সাথেই ছবি তুলতে চান। একসাথে সম্ভব না হলে দফায় দফায় ছবি তোলা হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামীতে হাওর অঞ্চলের সব সড়ক এলিভেটেড বা উড়াল সড়ক নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। হাওরের সড়কে ছোট কালভার্ট নির্মাণ না করে বড় ব্রিজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর।

তিনি বলেন, হাওর এলাকায় ভবিষ্যতে যে সড়ক হবে সেগুলো উড়াল সড়ক করা হবে। পানি প্রবাহ ঠিক রাখতে কালভার্টের পরিবর্তে ব্রিজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন। এছাড়া মূল্যস্ফীতি বাদ দিলে পদ্মাসেতুর মূল খরচ দিয়েই পদ্মাসেতু নির্মাণ করা হয়েছে।

একনেকে, ১০ হাজার ৮৫৫ কোটি ৬০ লাখ ব্যয়ে ১০ টি প্রকল্প একনেক সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ৫ হাজার ১৪২ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে।