ঢাকা, সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ৪০০ মিটারে ১২ দিনে ৮ দুর্ঘটনা

হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নূরপুর এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ৪০০ মিটার জায়গা পিচ্ছিল হয়ে একই স্থানে ৮টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। সংস্কারের পরও সড়কটি দুর্ঘটনাপ্রবণ হয়ে আছে বলে জানিয়েছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

একই স্থানে ঘন ঘন দুর্ঘটনার পর এলাকাবাসী এ নিয়ে আন্দোলনে নেমেছেন। তারা দ্রুত সড়কটি পুনরায় সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি নূরপুর এলাকায় নছরতপুর থেকে সুতাং নদীর ওপর ব্রিজ পর্যন্ত ৪০০ মিটার জায়গায় ছোট ছোট ফাটলের সৃষ্টি হলে সড়ক ও জনপথ বিভাগ স্থানটি সংস্কার করে। এরপর থেকে সামান্য রোদ অথবা বৃষ্টি হলেই সড়কটি পিচ্ছিল হয়ে যায়। গত ৫ মে থেকে ১৮ মে এই ৪০০ মিটার জায়গায় ৮টি সড়ক দুর্ঘটনায় শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সেখানে গত ৫ মে দুইটি যাত্রীবাহী গাড়ির মধ্যে সংঘর্ষ হয়, ৯ মে বিআরটিসি পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়, ১০ মে দুটি মোটরসাইকেল স্লিপ করে সড়কের পাশে খাদে পড়ে, ১১ মে একটি সিএনজি অটোরিকশা উল্টে যায়, ১২ মে ২টি ট্রাকের মধ্যে সংঘর্ষ হয়, ১৪ মে একটি প্রাইভেট কার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে, ১৭ মে সকালে আরেকটি যাত্রীবাহী বাস রাস্তার পাশে পড়ে যায় এবং ১৮ মে সন্ধ্যায় দুটি ট্রাকের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসব দুর্ঘটনায় শতাধিক মানুষ আহত হওয়ার পাশাপাশি মালামালেরও ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে, সড়কটি সংস্কারের দাবিতে গত ১৩ মে স্থানীয়রা ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করেন। সামান্য বৃষ্টি হলেই সড়কটি স্যাঁতসেঁতে হয়ে যায়। রোদেও পিচ্ছিল হয়। পরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন।

যোগাযোগ করা হলে সড়ক বিভাগ হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপ-বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ রমজান আলী বলেন, আবহাওয়া ভাল হয়ে গেলে আমরা এই অংশের মেরামত করে দেবো।