ঢাকা, সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মার্কিন আইনপ্রণেতারা ঢাকা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক আরো জোরদারে আগ্রহী

মার্কিন সিনেটর টেড ক্রুজ ও কংগ্রেসম্যান স্টিভ চ্যাবোট ঢাকা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরো জোরদার করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খানের নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এ ইচ্ছা প্রকাশ করা হয়। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ দূতাবাসের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গতকাল বুধবার ওয়াশিংটনের ক্যাপিটল হিলে সিনেটর ও কংগ্রেসম্যানের নিজ নিজ কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. সহিদুল ইসলাম ও দূতাবাসের কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যরা হচ্ছেন- নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, নাহিম রাজ্জাক এমপি এবং কাজী নাবিল আহমেদ এমপি।

বৈঠকে প্রতিনিধিদল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন সম্পর্কে মার্কিন আইনপ্রণেতাদের অবহিত করে। এছাড়া প্রতিনিধিদলের সদস্যরা বাংলাদেশের টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, দক্ষ কোভিড-১৯ ব্যবস্থাপনা এবং গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার আরো উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন।

বৈঠকে প্রতিনিধিদলের সদস্যরা মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া মার্কিন মানবিক ও রাজনৈতিক সমর্থনের কথা উল্লেখ করেন।

প্রতিনিধিদল রোহিঙ্গাদের নিজ দেশের রাখাইন রাজ্যে নিরাপদ ও স্বেচ্ছায় প্রত্যাবর্তন নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টিসহ সম্ভাব্য সব উপায়ে রাজি করাতে মার্কিন আইনপ্রণেতাদের প্রতি অনুরোধ জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতারা বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের উদারতার ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে অব্যাহত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার আশ্বাস দেন।

এছাড়া সংসদীয় প্রতিনিধিদল বাংলাদেশকে ৬৪ মিলিয়ন ডোজ কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন অনুদানের জন্য মার্কিন সরকারের প্রশংসা করে।