ঢাকা, সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এই ভ্যাপসা গরম নিয়ে যা জানালো আবহাওয়া অফিস

ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে গত সপ্তাহের টানা বৃষ্টির পর চলতি সপ্তাহের শুরু থেকেই উত্তাপ ছড়াতে শুরু করেছে সূর্য। উত্তরাঞ্চলসহ দেশের পশ্চিমাঞ্চলে বৃষ্টি হলেও বাকি এলাকাগুলোতে তাপমাত্রা বেড়েই চলেছে। ফলে ভ্যাপসা গরমে অতীষ্ট ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, খুলনা ও বরিশাল অঞ্চলের মানুষ।
আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, আগামী চার দিন অর্থাৎ শুক্রবার পর্যন্ত এই ভ্যাপসা গরম অব্যাহত থাকতে পারে। বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় তাপমাত্রার চেয়ে বেশি গরম অনুভূত হচ্ছে। শুক্রবারের পর বৃষ্টি হয়ে কমে আসতে পারে তাপমাত্রা। এছাড়া মৌসুমের কারণে কালবৈশাখী হয়েও কোথাও কোথাও তাপমাত্রা কিছুটা কমে আসতে পারে।

গত সপ্তাহের ৯ মে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাজশাহীতে ৩৬ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সোমবারও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রাজশাহীতে, সঙ্গে আছে ঈশ্বরদীও। তবে উত্তরাঞ্চলে বৃষ্টির কারণে তাপমাত্রা কিছুটা কম। আজ রংপুরে তাপমাত্রা ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া ৯ মে ঢাকায় তাপমাত্র ছিল ৩০, আজ তা ৪ ডিগ্রি বেড়ে ৩৪ দশমিক ৮; ময়মনসিংহে ছিল ৩১ দশমিক ৫, আজ ২ ডিগ্রি বেড়ে ৩৩ দশমিক ৫; চট্টগ্রামে ছিল ৩১ দশমিক ৮, আজ তা ৩ ডিগ্রি বেড়ে ৩৪; সিলেটে ছিল ৩১ দশমিক ২, আজ ৩১ দশমিক ৫; রংপুরে ছিল ৩৪ দশমিক ৭, আজ বৃষ্টির কারণে কিছুটা কমে ৩২; খুলনায় ছিল ৩১, আজ ৪ ডিগ্রি বেড়ে ৩৫ দশমিক ৫ এবং বরিশালে ছিল ২৯ দশমিক ৮, আজ তা ৫ ডিগ্রি বেড়ে ৩৪ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠেছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিরাজমান রয়েছে।

আরো পড়ুন> বিশ্বচোর বিএনপির মুখে অর্থ পাচারের কথা মানায় না: তথ্যমন্ত্রী

পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়, চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী ও ঢাকা বিভাগের দু’-এক আয়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বিজলি চমকানোসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের উত্তরাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্য এলাকায় আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

এদিকে তাপমাত্রার বিষয়ে বলা হয়, সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

এই ভ্যাপসা গরমের বিষয়ে আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেন, আগামী চার দিন দেশের মধ্যাঞ্চলের এই ভ্যাপসা গরম অব্যাহত থাকতে পারে। এরপর বৃষ্টি হয়ে তাপমাত্রা কমে আসতে পারে। তবে এর আগে কোথাও যদি কালবৈশাখী ঝড়সহ বৃষ্টি হয়, সেখানেও তাপমাত্রা কিছুটা কমে আসতে পারে।

তিনি বলেন, ঢাকায় এখন যে তাপমাত্রা তার চেয়ে গরম বেশি অনুভূত হচ্ছে। কারণ, বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ অনেক বেশি। ঘাম শুকাচ্ছে না। ফলে গরম বেশি অনুভূত হচ্ছে।

এদিকে নদী বন্দরগুলোর জন্য দেওয়া এক সতর্কবার্তায় বলা হয়, দিনাজপুর, রংপুর, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা ও সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।