ঢাকা, সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ট্রেনে ২ ও ৪ মে’র টিকিটের জন্য ভিড়

শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার ওপর ভিত্তি করে ২ ও ৪ মে’র টিকিট বিক্রির কথা জানিয়েছিল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। চাঁদ দেখা না যাওয়ায় টিকিট বিক্রি শুরু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।
রোববার রাত ৯টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার আফসার উদ্দিন।

এ দুই দিনের টিকেট একযোগে কাউন্টার ও অনলাইন থেকে পাওয়া যাবে। আজ রাত ৮টার পর থেকে রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে টিকিট প্রত্যাশীরা কাউন্টারে ভিড় করছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, কাউন্টারের সামনে টিকিট প্রত্যাশীদের দীর্ঘ সারি তৈরি হয়েছে। যারা কাঙ্ক্ষিত টিকিট পাচ্ছেন, তারা কাউন্টার ছেড়ে যাচ্ছেন।

জামালপুরগামী আন্তঃনগর তিস্তা ট্রেনের টিকিট কিনতে আসা নাঈম হাসান বলেন, জরুরি প্রয়োজনে ঢাকায় থাকতে হচ্ছে। ভেবেছিলাম ২৯ রোজা হলে ঈদ হয়তো ঢাকায় করতে হবে। তবে ৩০ রোজা হচ্ছে। জরুরি কাজও শেষ হয়ে যাবে। তাই চলে যাব। কালকের টিকিট কাটতে এসেছি। এখনো পাইনি। জানি না পাব কি না। না পেলে বাসে করে যেতে হবে।

মূলত বুধবার থেকে শুরু হয়েছে ঈদযাত্রা। এরইমধ্যে অনেকে ঢাকা ছেড়েছেন। আবার অনেকে শেষ মুহূর্তে যাচ্ছেন। বাস, ট্রেন, লঞ্চ ও মোটরসাইকেলে এবার রাজধানী ছেড়েছেন অনেকে।

এদিকে ঈদুল ফিতর শেষে ঘরমুখো মানুষের নিজ কর্মক্ষেত্রে ফিরতে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে আজ (১ মে) থেকে। ঈদের সম্ভাব্য তারিখ ৩ মে ধরে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। ঈদের পর কর্মক্ষেত্রে ফিরতে ৫ মে’র টিকিট দেওয়া হচ্ছে আজ। ৬ মে’র টিকিট ২ মে, ৭ মের টিকিট ৩ মে এবং ৮ মের টিকিট ৪ মে বিক্রি করা হবে।`