ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

করোনায় মৃত্যু ৪৯ লাখ ৫৬ হাজার ছাড়িয়েছে

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) এ পর্যন্ত বিশ্বে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ২৩ কোটি ৭৯ লাখ ৭২ হাজার ৫৭৬ জন এবং এ রোগে মারা গেছেন মোট ৪৮ লাখ ৫৬ হাজার ৩৮২ জন।
এছাড়া মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ২১ কোটি ৫১ লাখ ১১ হাজার ৮৬০ জন।

এদিকে শুক্রবার বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৪২ হাজার ৭৩১ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৫৩২ জনের। পাশপাশি এদিন করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪ লাখ ৪৬ হাজার ৭৪০ জন।

মহামারি শুরুর পর থেকে এ রোগে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হালনাগাদ তথ্য প্রদানকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার্স থেকে শনিবার সকালে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বৃহস্পতিবারের মতো শুক্রবারও করোনায় নতুন আক্রান্ত ও মৃত্যুর হিসেবে বিশ্বের দেশসমূহের মধ্যে শীর্ষে ছিল যুক্তরাষ্ট্র। এদিন দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৬ হাজার ২৯৮ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৯৩৭ জন।

যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যুর উচ্চহারের দেশগুলো হলো যুক্তরাজ্য (নতুন রোগী ৩৬ হাজার ৬০, মৃত্যু ১২৪), তুরস্ক (নতুন রোগী ৩০ হাজার ২০১, মৃত্যু ১৮৮), রাশিয়া (নতুন রোগী ২৭ হাজার ২৪৬, মৃত্যু ৯৩৬), ভারত (নতুন রোগী ১৯ হাজার ৮৭০, মৃত্যু ২৪৮), এবং ব্রাজিল (নতুন রোগী ১৯ হাজার ৮৭০, মৃত্যু ৬২৮)।

এদিকে বর্তমানে বিশ্বে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৮০ লাখ ৪ হাজার ৩৩৪ জন। আক্রান্ত এ রোগীদের মধ্যে মধ্যে করোনার মৃদু উপসর্গ বহন করছেন ১ কোটি ৭৯ লাখ ২০ হাজার ৯৬৭ জন এবং গুরুতর অসুস্থ রয়েছেন ৮৩ হাজার ৩৬৭ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে বিশ্বের প্রথম করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। করোনায় প্রথম মৃত্যুর ঘটনাটিও ঘটেছিল দেশটিতে। এরপর দ্রুতগতিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে এ ভাইরাসটি। পরে ওই বছরের ১১ মার্চ করোনাকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।