ঢাকা, সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সালমান শাহকে হারানোর ২৫ বছর

ঢাকাই সিনেমার অমর নায়ক বলা হয় সালমান শাহকে। মাত্র সাড়ে তিন বছরের ক্যারিয়ারে যিনি হয়ে উঠেছিলেন বাংলা সিনেমার উজ্জ্বলতম নক্ষত্র। ২৫ বছর আগে আজকের এই দিনে কোটি ভক্তকে কাঁদিয়ে তিনি চলে গিয়েছিলেন না ফেরার দেশে।

মৃত্যুর ২৫ বছর পরেও কমেনি তার এতটুকুও জনপ্রিয়তা, বরং সেই জনপ্রিয়তা যেন দিন দিন বেড়েই চলেছে। শুধু দর্শক নয়, মৃত্যুর দুই যুগ পর এখনো সালমান শাহর অভাব অনুভব করেন বাংলা চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক-প্রযোজক এবং অভিনয়শিল্পীরা।

তার মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২৫ বছর আগে এই দিনে সবাইকে অবাক করে বিদায় নেন এই সুদর্শন নায়ক।

১৯৭০ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সিলেট জেলার জকিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। বাবার নাম কমর উদ্দিন চৌধুরী ও মা নীলা চৌধুরী। বাবা-মায়ের দেয়া নাম শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন। সিনেমা জগতে ‘সালমান শাহ’ নাম নিয়ে অভিষেক হয় তার।

নব্বইয়ের দশকে ছোট্ট ক্যারিয়ারে ঢাকাই সিনেমায় বেশ বড় প্রভাব ফেলেন সালমান। স্বল্প সময়ের মধ্যে ২৭টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। বেশিরভাগ সিনেমাই ব্যবসা সফল ছিল। যার মধ্যে কেয়ামত থেকে কেয়ামত, বিক্ষোভ, স্বপ্নের ঠিকানা, কন্যাদান, মায়ের অধিকার, সত্যের মৃত্যু নেই উল্লেখযোগ্য।

মৌসুমী-শাবনুরদের সঙ্গে জুটি গড়ে বড় পর্দায় ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন তিনি। ১৯৯২ সালের ১২ আগস্ট সামিরাকে বিয়ে করেন সালমান শাহ। চার বছর সংসার করে ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর চিরবিদায় নেন তিনি।