ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭

‘রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে প্রয়োজন সমন্বিত বৈশ্বিক প্রতিক্রিয়া ও ভাবনা’

দেশে চলমান শরণার্থী সমস্যা রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সমন্বিত বৈশ্বিক প্রতিক্রিয়া ও ভাবনা প্রয়োজন বলে মনে করছে ইয়ুথ পলিসি ফোরাম। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত তরুণ প্রজন্মের নীতি গবেষণামূলক এই প্রতিষ্ঠানটির ‘রোহিঙ্গা অ্যাডভোকেসি প্রোগ্রাম’ শীর্ষক কর্মসূচির উদ্বোধনী ওয়েবিনার সেশনে অংশগ্রহণকারী বক্তারা এই মন্তব্য করেন।‘রোহিঙ্গা অ্যাডভোকেসি প্রোগ্রাম’ শীর্ষক কর্মসূচির মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে করণীয় বিষয়ে আলোচনা করার লক্ষ্যে একটি বছরব্যাপী কর্মসূচি শুরু করেছে ইয়ুথ পলিসি ফোরাম।উদ্বোধনী ওয়েবিনার সেশনটির মূল আলোচ্য বিষয় ছিল ‘রোহিঙ্গা সংকটের বর্তমান পরিস্থিতি এবং বিশ্বব্যাপী এর সাড়া’।ওয়েবিনার সেশনে বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট সদস্য স্টিফেন কিনক, ইউএনএইচসিআর’র বাংলাদেশ প্রতিনিধি স্টিভেন করলিস, যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ডক্টর মুশফিক মোবারাক এবং প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহযোগী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ।

স্টিভেন করলিস ইউএনএইচসিআর’র প্রতিনিধি হওয়া সত্ত্বেও কক্সবাজারে রোহিঙ্গা আশ্রয় কেন্দ্রগুলোর সার্বিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেন এবং রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে তার প্রতিষ্ঠানটির ভূমিকা নিয়েও আলোচনা করেন।ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদের মতে, রোহিঙ্গা সংকট আন্তর্জাতিক মহলে আগের মতো আর গুরুত্ব পাচ্ছে না এবং তাদের প্রত্যাবসান নিয়ে বাংলাদেশের যতটুকু তৎপরতা রয়েছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো ততটা নয়।ডক্টর আহমেদ মুশফিক মোবারক তার সহকর্মীদের নিয়ে মিয়ানমারের প্রধান খাদ্য চালের ফলন এবং দাম ইত্যাদি নিয়ে গবেষণা করে রোহিঙ্গা সংকটকে একটি অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখার চেষ্টা করেন। ওয়েবিনার সেশনটির সঞ্চালনায় ছিলেন ইয়ুথ পলিসি ফোরামের কনটেন্ট ও সম্পাদকীয় শাখার প্রধান মাসতুরা তাসনিম।

মন্তব্য করুন