ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭

মালদ্বীপের সৈকতে ছুটি কাটাচ্ছেন টাইগার ও দিশা

লকডাউন শিথিল হতেই তারকারা দম ফেলতে ছুটছেন দুবাই অথবা মালদ্বীপ। এই মুহূর্তে মালদ্বীপ আছেন বলিউডের দুই জোড়া জুটি। সদ্য বিবাহিত দম্পতি কাজল আগারওয়াল ও গৌতম কিসলু বিয়ের পর হানিমুনে গিয়েছেন সেখানে। আর দুই প্রেমিক–প্রেমিকা টাইগার শ্রফ ও দিশা পাটানিও গিয়েছেন ছুটি কাটাতে।পালিয়ে প্লেনে উঠতে গিয়ে মুম্বাই এয়ারপোর্টে ভক্তদের চোখে ঠিকই ধরা পড়েছেন টাইগার শ্রফ ও দিশা পাটানি। কোথায় গেলেন তাঁরা? এই প্রশ্নের উত্তর মিলেছে এক দিন পর, টাইগারের ইনস্টাগ্রামের ছবিতে। মালদ্বীপের সমুদ্রসৈকতে হলুদ রঙের প্যান্ট পরা ছবি দিয়েছেন তিনি। আর প্যান্টের দৈর্ঘ্য ছোট হওয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে লিখেছেন, ‘আমার প্যান্টের দৈর্ঘ্যকে ক্ষমাসুন্দর চোখে দেখবেন। লকডাউনে আমার প্যান্ট ছোট হয়ে গেছে অথবা পা লম্বা হয়ে গেছে।’আরেকটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, সমুদ্রে গোসল করছেন টাইগার। পেছনে তিনটি জাহাজও দেখা যাচ্ছে। ওই ছবির ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘বিশ্বকে বাঁচাতে আমাদের সাধ্যমতো সবকিছুই করতে হবে।’ ভক্তদের আশা মিটিয়ে একের পর এক ছবি পোস্ট করছেন টাইগার। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত মোট পাঁচটি ছবি শেয়ার করেছেন এই বলিউড তারকা।অন্যদিকে দিশা পাটানির ইনস্টাগ্রামে সমুদ্রের ছবি, সমুদ্রের ভিডিও আর নিজের ছবি। ভক্তদের একেবারে নিরাশ করেননি দিশা। সৈকতে বিকিনি পরা দুটি ছবি শেয়ার করেছেন দিশা।দুজন আলাদা আলাদা ছবি দিলেও একসঙ্গে কোনো ছবি দেননি কেউই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই তাই মজা করে লিখেছেন, ‘হয়তো একজন আরেকজনের ছবি তুলে দিয়েছেন।’ উত্তরে টাইগার ও দিশা–ভক্তরা দুজনের একটি সেলফির দাবি জানিয়েছেন।দিশা আর টাইগারের প্রেম বলিউডে ‘ওপেন সিক্রেট’। তাঁরা একসঙ্গে নাচ শেখেন, জিমে যান, একসঙ্গে রাতের খাবারও খান। শুধু প্রেম করছেন কি না, এমন প্রশ্নের উত্তরে দুজনেই বলেন পুরোনো, ক্লিশে ও মুখস্থ উত্তর, ‘আমরা খুবই ভালো বন্ধু।’প্রেমের ব্যাপারে ইনস্টাগ্রাম লাইভে টাইগার শ্রফকে জিজ্ঞাসা করা হলে একগাল হেসে উত্তর দিয়েছিলেন, ‘আমি তো দিশার সঙ্গে প্রেম করার যোগ্যই নই।’অন্যদিকে ‘ভারত’ সিনেমার প্রচারণার সময় এক সাংবাদিক দিশা পাটানিকে প্রশ্ন করেছিলেন এভাবে, ‘আপনারা যে প্রেম করছেন, তা দিনের আলোর মতো পরিষ্কার। আপনাদের দুজনকে ভক্তরা দারুণ পছন্দ করেন। স্বীকার করেন না কেন?’উত্তরে দিশা বলেছিলেন, ‘আমি টাইগারের মন পাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু ওকে তো পটাতেই পারছি না। তবে একসঙ্গে ডিনারে গেলেই প্রেম হয়ে যায় না।’এর আগে ২০১৮ সালেও মালদ্বীপ গিয়েছিলেন এই জুটি। সেবারও আলাদা আলাদা দুজনের ছবি এলেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কোনো ছবিতেই তাঁদের দুজনকে একসঙ্গে দেখা যায়নি

মন্তব্য করুন